সংবাদ শিরোনাম

খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট নিয়ে যা বললেন চিকিৎসক২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিলেন কাদের মির্জাটাঙ্গাইলে ভন্ড পুরুষ কবিরাজ নারী সেজে যুবককে বিয়ে! অতঃপর…ব্যক্তিগত কাজে সরকারি গাড়ি নিয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার ঢাকা ভ্রমণ!শেরপুরের সেই শিশু রোকনের পরিবারের পাশে ইউএনও!কক্সবাজারে অস্ত্রসহ ডাকাতি মামলার আসামি গ্রেফতারকক্সবাজারে অনুপ্রবেশকারীর পক্ষ না নেয়ায়, আ’লীগ সভাপতিকে অব্যাহতি!শাহজাদপুরে ট্যাংকলরি সিএনজি’র মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ১রমজান মাসে আলেমদের হয়রানি মেনে নেয়া যায় না: নুরুল ইসলাম জিহাদীখালেদা জিয়াকে পাকিস্তান-জাপান দূতের চিঠি

  • আজ ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

লকডাউন বাড়বে কিনা, প্রশ্নে যা বললেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

৫:১২ অপরাহ্ন | শনিবার, এপ্রিল ৩, ২০২১ জাতীয়
forhad

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- করোনা পরিস্থিতির ক্রমাগত অবনতি হওয়ায় সারাদেশে লকডাউন ঘোষণা করছে সরকার। করোনা রোধে আপাতত সাত দিনের লকডাউন দেওয়া হলেও সেটি বাড়ানো হবে কিনা সেটি পরে বিবেচনা করা হবে। বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে পরামর্শ করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

লকডাউন বাড়বে কিনা শনিবার (০৩ এপ্রিল) দুপুরে গণমাধ্যমের এমন প্রশ্নে তিনি এ কথা জানান।

এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন কেন, জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, আপাতত সাত দিন লকডাউন দিচ্ছি। আশা করছি, এই সাত দিন মানুষকে ঘরের মধ্যে রাখতে পারলে সংক্রমণ রোধ করতে পারব। না হয় সংক্রমণ আরও ছড়িয়ে যাবে। লকডাউন বাড়বে কিনা সেগুলো সাত দিন লকডাউনের শেষের দিকে বিবেচনা করব, বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেব। আপাতত সাত দিন থাকবে।

এর আগে লকডাউনে শ্রমজীবী মানুষদের জন্য বিভিন্ন রকমের সহায়তার ব্যবস্থা ছিল, এবার হকে কিনা এমন প্রশ্নে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, লকডাউন আপাতত সাত দিনের জন্য। সেগুলো নিয়েও চিন্তাভাবনা থাকছে। সন্ধ্যায় প্রজ্ঞাপন দেওয়া হবে। সেখানে লকডাউনের বিধি নিষেধ সম্পর্কে বিস্তারিত থাকছে।

এর আগে প্রতিমন্ত্রী রাজধানীর বেইলি রোডের বাসা থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো ভিডিও বার্তায় বলেন, লকডাউনে জরুরি সেবা দেয়—এমন প্রতিষ্ঠানগুলোই শুধু খোলা থাকবে। শিল্পকারখানাও খোলা থাকবে। শ্রমিকেরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিফট (পালা করে) অনুযায়ী কাজ করবেন।

এদিকে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ইতোমধ্যে বন্ধ করা হয়েছে দেশের বিভিন্ন স্থানের পর্যটন কেন্দ্র। বাতিল করা হচ্ছে হোটেল-মোটেলে আগাম নেওয়া বুকিং। পাশাপাশি নতুন বুকিংও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া সরকার থেকে ১৮ দফা নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।