• আজ সোমবার। গ্রীষ্মকাল, ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ১৯শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। বিকাল ৫:৪৪মিঃ

লকডাউনের মেয়াদ বাড়বে কি না, সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার

৪:৪৪ অপরাহ্ন | সোমবার, এপ্রিল ৫, ২০২১ জাতীয়
gov

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে লকডাউনসহ অন্যান্য বিধিনিষেধের বিষয়ে আগামী বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) পর্যালোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। মন্ত্রিপরিষদের নিয়মিত বৈঠক (ভার্চ্যুয়াল) শেষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, দেখি আমরা কী হয়। মানুষকে কো-অপারেট করতে হবে। আপনারা তো বার বার বলতেছেন। কিন্তু এখনও পুরোপুরি কো-অপারেশন…। সবাই যদি মাস্ক ব্যবহার করে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে তাহলে তো অসুবিধা হওয়ার কথা না।

এখন যে পরিস্থিতি আছে এই পরিস্থিতি থাকলে কি লকডাউন বাড়ানো হবে- এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দেখি সাত দিন পর কী অবস্থা হয়। বৃহস্পতিবার আবার রিভিউ করব ইনশা আল্লাহ।’

অফিসে কত শতাংশ জনবল উপস্থিত থাকবে, ৫০ শতাংশ নিয়ে চলবে কি না, সব মন্ত্রণালয় খোলা থাবে কি না- এসব প্রশ্নে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আমরা বলে দিয়েছি কমফোর্ট অনুযায়ী কমানোর জন্য। অফিস চালানোর জন্য যতটুকু দরকার ততটুকু থাকবে।

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়তে থাকায় সোমবার (৫ এপ্রিল) সকাল ৬টা থেকে আগামী সাত দিনের লকডাউন শুরু হয়েছে। এ দফায় আগামী ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত থাকবে এই লকডাউন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে এবং সরকারের মন্ত্রিসভার দুই সদস্য লকডাউন বললেও, সরকারের ১১ দফা সিদ্ধান্তকে লকডাউন বলতে নারাজ মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি এটিকে বলছেন নিষেধাজ্ঞা।

লকডাউন বাস্তবায়ন প্রশ্ন করা হলে সচিব বলেন, ‘নিষেধাজ্ঞা বলেছি কিন্তু, আমরা লকডাউন ঠিক বলিনি।’

এই নিষেধাজ্ঞার মধ্যে বইমেলা খোলা কেন? জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে বইমেলার বিষয়টি পৃথকভাবে হ্যান্ডেল করতে।’