• আজ ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কলেজছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল, আটক ২ কলেজছাত্র

৮:১২ পূর্বাহ্ন | বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৮, ২০২১ অপরাধ, আলোচিত
কলেজছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ চট্টগ্রাম নগরের পাঁচলাইশ থানা এলাকার এক কলেজছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানোর অভিযোগে দুই কলেজ ছাত্রকে আটক করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।

এছাড়াও এ ঘটনায় জড়িত আরও এক প্রহরীর ছেলেকে আটক করার চেষ্টা চলছে বললে জানিয়েছে পুলিশ।

বুধবার (৭ এপ্রিল) নগরের পাঁচলাইশ ও নন্দনকানন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়েছে। আটক ছাত্ররা হলেন- চট্টগ্রাম ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্র অভিষেক সেন শর্মা (১৯) ও সেন্টপ্লাসিড স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র আদিত্য বড়ুয়া (১৮)। তারা আপন খালাতো ভাই বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, গত ২৯ মার্চ ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর কাপড় পাল্টানোর একটি ভিডিও তারই ফেসবুক মেসেঞ্জার ও হোয়াটস অ্যাপে পাঠান অভিষেক। এরপর ভিডিওটি অন্যান্য ওয়েবসাইটে আপলোড করার হুমকি দিয়ে তিনি টাকা দাবি করেন। বিষয়টি ভুক্তভোগীর পরিবার পুলিশের কাছে জানালে পাঁচলাইশ এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিষেককে আটক করে পুলিশ।

পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিষেক স্বীকার করেন, তিনি এক প্রহরীর ছেলের মাধ্যমে গোপনে কলেজছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে তার খালাতো ভাই আদিত্যকে দেন। আদিত্য এসব ভিডিও বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আপলোড করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে নন্দনকানন এলাকা থেকে আদিত্য বড়ুয়াকেও আটক করে।

নগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার আসিফ মহিউদ্দীন বলেন, আপত্তিকর ভিডিও ধারণ ও বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ছড়ানোর অভিযোগে দুই শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত আরও এক প্রহরীর ছেলেকে আটক করার চেষ্টা চলছে। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা করা হচ্ছে।

গত ৬ এপ্রিল প্রকাশিত এরকম আরও সংবাদ

নওগাঁ প্রতিনিধি | ০৬ এপ্রিল, ২০২১

নওগাঁর মহাদেবপুরে এক কলেজছাত্রীর অনৈতিক সম্পর্কের গোপন ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকির অভিযোগে দুজনের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার একটি কলেজের একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রীর (১৭) সাথে একই কলেজের ছাত্র ও রাইগাঁ গ্রামের মধ্যপাড়ার বাসিন্দা রায়হান সিদ্দিকির ছেলে সাইদিস হাসান সনির (১৯) দুই বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

ওই সম্পর্কের সূত্র ধরে সাইদিস হাসান কলেজছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে শারীরিক সর্ম্পক গড়ে তোলে। এই শারীরিক সর্ম্পক গড়ে তোলার সময় সনি গোপনে মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে রাখে।

সম্প্রতি ওই কলেজ ছাত্রী তাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে সাইদিস তার প্রস্তাব প্রত্যাখান করে এবং পুনরায় তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে চায়। গত ২৮ মার্চ সনির মোবাইলে ধারণকৃত ওই ভিডিওটি তার বন্ধু রাইগাঁ বাজারের কালিদাসের ছেলে অভিজিৎ এর মোবাইলে শেয়ার করে। অভিজিৎ ওই ভিডিওটি ছাত্রীকে দেখিয়ে তার প্রেমিক সনির সাথে পুনরায় শারীরিক সম্পর্ক করার কথা বলে। এ প্রস্তাবে ওই কলেজ ছাত্রী রাজি না হলে ভিডিওটি ইন্টারনেট ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয় প্রেমিক সাইদিস।

গত ৪ এপ্রিল ওই কলেজ ছাত্রী তার পরিবারের লোকজনকে বিষয়টি জানায়। এ ঘটনায় কলেজ ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মঙ্গলবার থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ও পর্নোগ্রাফি আইনে সাইদিস হাসান সনি ও তার বন্ধু অভিজিৎ এর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় পুলিশ প্রেমিক সাইদিস হাসান সনিকে গ্রেফতার করেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজম উদ্দিন মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, প্রধান আসামিকে আটক করা হয়েছে এবং ভিকটিমকে ২২ ধারায় জবানবন্দীর রেকর্ডের জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন

দিনাজপুরে মাদ্রাসাছাত্রকে বলাৎকার, শিক্ষক আটক