বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় স্কুলছাত্রীর বাবাকে কুপিয়ে ক্ষত-বিক্ষত

hobigonj
❏ শনিবার, এপ্রিল ১০, ২০২১ সিলেট

মঈনুল হাসান রতন, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি- হবিগঞ্জ সদর উপজেলার আউড়া গ্রামে বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় আব্দুল খালেক (৫৫) নামে এক স্কুল ছাত্রীর পিতাকে কুপিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করেছে প্রতিপক্ষরা।

গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। আহত আব্দুল খালেক ওই গ্রামের মৃত রঙ্গু মিয়ার পুত্র।

শুক্রবার দুপুরে আউড়া গ্রামে খালেক মিয়ার নিজ বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত আব্দুল খালেক জানান, তিনি একজন সরকারী চাকুরীজীবি ছিলেন। এর সুবাধে তার জায়গা সম্পত্তি আপন ও চাচাত ভাইয়েরা ভোগদখল করে আসছিল। সম্প্রতি তিনি চাকুরী থেকে অবসরে আসেন এবং তার সকল সম্পত্তি নিজের কাছে নিয়ে আসেন। এরই জেরধরে অনু মিয়া জায়গা সম্পত্তি ভোগদখল করতে আমার স্কুল পড়ুয়া কন্যাকে দিয়ে সে তার ছেলের জন্য বিয়ের প্রস্তাব পাঠায়। কিন্তু আমার মেয়ের বিয়ের বয়স না হওয়ায় আমি তা প্রত্যাখ্যান করে দেই।

এরই প্রেক্ষিতে অনু মিয়া, আব্দুল গণি, আব্দুল মন্নান, আব্দুস সালামসহ তাদের লোকজন আমার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আমাকে গুরুতর আহত করে।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) দৌস মোহাম্মদ জানান, বিষয়টি আমরা জানতে পেরেছি। আহত আব্দুল খালেককে হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।