মোবাইল চুরির অপরাধে শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন, গ্রেফতার ১

atok
❏ রবিবার, এপ্রিল ১১, ২০২১ বরিশাল

জাহিদ রিপন, পটুয়াখালী- পটুয়াখালীর গলাচিপায় মোবাইল চুরির অভিযোগে গাছে বেঁধে রাকিব গাজী নামের ১২ বছরের এক শিশুকে নির্যতন করা হয়েছে। কেটে দেয়া হয়েছে মাথার চুল। একই অভিযোগে রাকিবের পিতা মকবুল গাজীকেও করা হয়েছে মারধর।

স্বামী, সন্তানকে নির্যাতন থেকে রক্ষা করতে এসে লাঞ্চিত হয়েছেন রাকিবের মা মোর্শেদা বেগম। শুধু তাই নয় পুরো নির্যতনের ঘটনাটি ভিডিও ধারণ করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে ফেজবুকে।

শুক্রবার (০৯ এপ্রিল) সকালে উপজেলার ডাকুয়া ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের এ ঘটনায় রাকিবের মা মোর্শেদা বেগম বাদী হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত তিন জনের নামে একটি মামলা দায়ের করলে সোহেল মৃধাকে (৩৮) গ্রেপ্তার করেছে গলাচিপা থানা পুলিশ। এদিকে মামলা করেও নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে শিশুটির পরিবার।

মামলার বিবরণ ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মোবাইল চুরির অভিযোগে শিশু রাকিবকে একই ইউনিয়নের ফুলখালী গ্রামের জুয়েল মৃধা, রাকিব মৃধা, সোহেল মৃধা, এমাদুল মৃধা ও জাকির মৃধাসহ অজ্ঞাত আরো দুই তিনজন আম গাছের সাথে হাত-পা বেঁধে তিন ঘণ্টা ধরে নির্যাতন চালায়। এসময় তার বাবা-মাকেও মারধর করা হয়েছে। নির্যাতনের ঘটনার প্রতিবাদ করলে লাঞ্চিত করা হয় ইউপি সদস্য আরিফ মিয়া ও ইউপি সদস্য রাকিব মিয়াকে।

এদিকে মামলা দায়ের হলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে ভিডিওটি ডিলিট করে ফেলে নির্যাতনকারীরা।

গলাচিপা থানার ভারিপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমআর শওকত আনোয়ার ইসলাম জানান, অভিযুক্ত সোহেল মৃধাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।