🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ মঙ্গলবার, ১০ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২৬ অক্টোবর, ২০২১ ৷

দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলোতে পৌঁছাতে ৪ গুণেরও বেশি ভাড়া

man
❏ মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৩, ২০২১ ঢাকা

মেহেদী হাসান সোহাগ, স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর- ‘সর্বাত্মক লকডাউনের’ ঘোষণায় শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে উভয়মুখী যাত্রীদের ঢল নেমেছে। লঞ্চ বন্ধ থাকলেও ফেরি, স্পীডবোট, ট্রলারে হাজার হাজার যাত্রী বাড়তি ভাড়া গুণে গাদাগাদি ঠাসাঠাসি করে পারাপার হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসি’র বাংলাবাজার ফেরিঘাট সূত্র জানায়, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত সপ্তাহের সোমবার থেকে সাত দিন সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রাখতে নির্দেশনা দেওয়া হয়। তবে জরুরি প্রয়োজনে উভয় ঘাটে দুটি ছোট ফেরি চালু রাখতে বলা হয়। কিন্তু গত কয়েকদিন যাবৎ ফেরি কম চলায় ঘাটে মালবাহী ট্রাকের জট সৃষ্টি হওয়ায় গত রবিবার থেকে ১৫টি ফেরিতে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার হচ্ছে।’

আর সোমবার সকাল থেকেই শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে দক্ষিনাঞ্চল ও ঢাকাগামী যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়তে থাকে। ফেরিতে যাত্রীদের চাপ সামলাতে অনেক কম যানবাহন নিয়েই ফেরি পাড়ি দিতে বাধ্যা হচ্ছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গণপরিবহন বন্ধ থাকায় মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেল, ইজিবাইকসহ বিভিন্ন যানবাহনে বাড়তি ভাড়া দিয়ে বাড়ি ফিরছে যাত্রীরা। কোথাও দেখা যায়নি স্বাস্থ্যবিধি মানার লক্ষণ।

এদিকে ফেরি চলাচল সীমিত থাকায় ঘাট এলাকায় পন্যবাহী ট্রাকের জট রয়েছে। শতাধিক কাচামালবাহী ট্রাক আটকে মালে পচন ধরেছে। দক্ষিনাঞ্চলের ২১ জেলার কাচামালবাহী ট্রাক সঠিকভাবে পার হতে না পারায় দ্রব্যমুল্যে প্রভাব পড়ার শংকা রয়েছে।

এছাড়া ঢাকা থেকে দক্ষিনাঞ্চলের জেলাগুলোতে পৌঁছাতে ৪ গুণেরও বেশি ভাড়া পড়ে যাচ্ছে। ঢাকা থেকে ৩ থেকে ৪ গুণ ভাড়া গুনে শিমুলিয়া থেকে স্পীডবোটে ভাড়া যাত্রী প্রতি নেয়া হচ্ছে ৪ শ থেকে ৫ শ টাকা, ট্রলারে ভাড়া নেয়া হচ্ছে দেড় শ টাকা। ঘাটে নেমে ইজিবাইক, সিএনজি, মোটরসাইকেলে বরিশালে ৫ শ থেকে ৬ শ টাকা, গোপালগঞ্জ ৫শ টাকা, খুলনা ৭ শ টাকা, মাদারীপুর ২শ টাকা, বাগেরহাট ৬শ ৫০ টাকাসহ প্রতিটি যানবাহনেই কয়েকগুন ভাড়া আদায় করা হচ্ছে।

এদিকে উভয় ঘাটেই যানবাহনের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। পন্যবাহী ট্রাকগুলো উভয় ঘাটে আটকে রয়েছে বেশ কয়েকদিন ধরে।

বিআইডব্লিউটিএ’র বাংলাবাজার ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘সকাল থেকে ১৫টি ফেরি চলছে। শিমুলিয়া থেকে অসংখ্য যাত্রী পার হয়ে আসছে ফেরিতে।

এদিকে বাংলাবাজার ঘাটে কমপক্ষে ১২ শত পরিবহন আটকা আছে।’