স্বর্ণালী অধ্যায়ের অবসান, চিরনিদ্রায় শায়িত কবরী

kobori
❏ শনিবার, এপ্রিল ১৭, ২০২১ বিনোদন

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- রাজধানীর বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন বরেণ্য অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরীকে। শনিবার (১৭ এপ্রিল) দুপুর ২টার দিকে বনানী কবরস্থানে জানাজা ও গার্ড অব অনার প্রদান শেষে তাকে সমাহিত করা হয়।

এর আগে দুপুর ১২টার দিকে বাসায় নেওয়া হয় সারাহ বেগম কবরীকে। সেখানে কিছুক্ষণ রাখা হয় তাকে। পরে বাদ জোহর তার মরদেহ নেওয়া হয় বনানী কবরস্থানে। সেখানে গার্ড অব অনার প্রদানের পর তার নামাজে জানাজা সম্পন্ন হয়।

এ সময় সেখানে উপস্থিত হন তার দীর্ঘদিনের সহকর্মী, আত্মীয়-স্বজন, পরিবারের সদস্য ও শুভানুধ্যায়ীরা। এরপর সমাহিত করা হয় দেশের চলচ্চিত্রের এই উজ্জ্বল নক্ষত্রকে।

কবরী অভিনীত প্রথম সিনেমা সুতরাং মুক্তি পায় ১৯৬৪ সালে, এখন ২০২১ সাল। ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে সিনেমায় ছিলেন কবরী। শেষ সময়েও ব্যস্ত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালনায়। বাংলা সিনেমার ইতিহাস, এর পরিবর্তন, সবই দেখেছেন কবরী। এই সব অভিজ্ঞতা নিয়ে চিরনিদ্রায় গেলেন কিংবদন্তি এই অভিনেত্রী। যেন একটি অধ্যায়, একটি ইতিহাস ঘুমিয়ে গেল তার সঙ্গে।

কয়েকদিন ধরেই লাইফ সাপোর্টে ছিলেন কিংবদন্তি অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী। করোনায় আক্রান্ত হয়ে তার ফুসফুসের অবস্থা ভালো ছিল না। অবশেষে মহামারি কবল থেকে আর ফেরা হলো না। শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ২০মিনিটে মারা যান সবার প্রিয় ‘মিষ্টি মেয়ে’।

গত ৫ এপ্রিল কবরীর ক‌রোনা রি‌পোর্ট পজিটিভ এলে তাকে কুর্মিটোলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে দরকার হয় আইসিইউর। কুর্মিটোলা হাসপাতালে আইসিইউ খালি না থাকায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সহযোগিতায় গত ৮ এপ্রিল তাকে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

আইসিইউতে প্রায় এক সপ্তাহ চিকিৎসাধীন থাকার পর বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। নেওয়া হয় লাইফ সাপোর্টে। সেখানেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন দেশের জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী।