আগামী দুতিনদিনের মধ্যেই ঝড়ো হাওয়ায় কাটবে তাপপ্রবাহ, স্বস্তি ফিরবে দেশজুড়ে

তাপপ্রবাহ
❏ শনিবার, এপ্রিল ২৪, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক-  মার্চের দ্বিতীয়ার্ধে এক দফা তাপপ্রবাহ বয়ে গিয়েছিলো। আর চলতি এপ্রিলে তিন দফা তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে দেশজুড়ে ।

টানা দাবদাহের মধ্যে গত বুধবার হালকা ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টিতে স্বস্তি এনেছিল জনমনে । কিন্তু দু’দিন পরেই গরম তাপপ্রবাহ নাভিঃশ্বাস উঠিয়েছে জনজীবনে। মাঝ বৈশাখে আরেকদফা তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে রাজধানীসহ দেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে, যা আরও অন্তত দুই-তিন চলবে বলে আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর ।

তবে ২৭ এপ্রিলের পর ঝড়ো হাওয়াসহ বজ্রবৃষ্টি দিয়ে তাপপ্রবাহ প্রশমিত হওয়ার আভাস দিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তর।

শনিবার সংবাদমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাতকারে আবহাওয়াবিদ আফতাব উদ্দিন বলেন, “দেশের কোথাও কোথাও তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। বিরাজমান এমন আবহাওয়া আরও দুই-তিন দিন অব্যাহত থাকবে এবং এর বিস্তারও ঘটবে।”

আবহাওয়াবিদ আফতাব উদ্দিন বলেন, “বৃষ্টিহীন বৈশাখে এমন গরম আবহাওয়া থাকেই। এটা অস্বাভাবিক নয়। এবার কোথাও কোথাও বৃষ্টি হচ্ছে; আবার কোথাও কোথাও নেই। সব মিলিয়ে গরমটাও দীর্ঘায়িত হচ্ছে। তবে এপ্রিলের শেষ দিকে গরম কমে যাবে।”

তিনি আরও জানান, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও রাজশাহী বিভাগ এবং শ্রীমঙ্গলের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

আজ শনিবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে যশোরে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় ঢাকায় তাপমাত্রা ছিল ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এছাড়া সীতাকুণ্ডে ৩৯.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সন্দ্বীপে ৩৮.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, রাজশাহীতে ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, খুলনায় ৩৯.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, মোংলায় ৩৯.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, খেপুপাড়ায় ৩৮.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বরিশালে ৩৮.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পটুয়াখালীতে ৩৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ময়মনসিংহে ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, শ্রীমঙ্গলে ৩৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে গরমের মৌসুমে ১৫ জুন রাজশাহীতে সর্বোচ্চ ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা উঠেছিল।

গত দুই যুগে বাংলাদেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস উঠেছিল যশোরে। তার আগে ১৯৯৫ সালে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ওঠেছিল ৪৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।