• আজ রবিবার, ২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৬ মে, ২০২১ ৷

লাখাইয়ে বোরোর বাম্পার ফলন, দামে হতাশ কৃষক

Habigonj news
❏ মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৭, ২০২১ সিলেট

মঈনুল হাসান রতন, হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের লাখাইয়ে পুরোদমে বোরো ধান কাটার কাজ চলছে। ইতোমধ্যে হাওরাঞ্চলের প্রায় ৪৮-৫০ ভাগ এবং সমতলের ১০-১৫ ভাগ ধান কাটা সম্পন্ন হয়েছে। বন্যা সতর্কীকরণের সংবাদে কৃষকগণ দ্রুত নিচু এলাকা ও হাওরাঞ্চলের ধান কাটতে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন। তাছারা ধান কাটার যান্ত্রিক ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়ায় এবং কৃষি বিভাগের মাধ্যমে ভর্তুকি মূল্যে কম্বাইন হার্ভেস্টার, রিপার মেশিনসহ কৃষি উপকরণ পাওয়ায় দ্রুত ধান কাটা ও মাড়াই দেওয়া সম্ভব হচ্ছে।

এদিকে শুরুতে ধানের মণপ্রতি দর ৮০০ থেকে ৮৫০ টাকা থাকায় কৃষকগণ বেশ উজ্জীবিত ছিলেন। কিন্তু বর্তমানে ধানের দরের ক্রমাগতভাবে পতনে কৃষককূল হতাশ। বর্তমানে ধানের মণপ্রতি দর ৬০০ থেকে ৬৫০ টাকা হওয়ায় তারা লোকসানে রয়েছেন। লাভ তো দূরের কথা, উৎপাদন খরচেও থাকছে ঘাটতি। কোনো কোনো ক্ষেত্রে উৎপাদন খরচ ও বিক্রয়মূল্য সমান। আর এতে তাদের সারা বছরের শ্রম বিফলে যেতে পারে। যারা নিজের জমি নিজে চাষ করেছেন, তারা কিছুটা লাভের মুখ দেখলেও বিপাকে পড়েছেন বর্গাচাষি ও বিঘাপ্রতি তিন থেকে চার হাজার টাকায় পত্তন নেওয়া চাষিরা। তারা সমূহ ক্ষতির সন্মুখীন।

স্থানীয় কৃষক নিঘোর বাসী দাসের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘আমি বিঘাপ্রতি ৩ হাজার টাকা করে জমি পত্তন নিয়ে ৫ বিঘা জমি চাষ করেছি। বর্তমানে ধানের দর কমে যাওয়ায় লাভ হচ্ছে না। তবে যারা আগাম ধান লাগিয়েছেন, তারা শুরুতে ভালো দর পেয়েছেন।’

উপজেলা কৃষি দপ্তর সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, এ বছর লাখাইয়ে বোরো ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১১ হাজার ২৮০ হেক্টর। চাষ হয়েছে লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। ধান কাটায় শ্রমিকের কোনো সংকট নেই। পাশাপাশি ১০টি কম্বাইন হার্ভেস্টার ও ১৫টি রিপার পুরোদমে ধান কর্তন করছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শাকিল খোন্দকার বলেন, ‘এ বছর লাখাইয়ে বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে এবং কৃষকরা ভালো দাম পাচ্ছেন। ইতোমধ্যে হাওরাঞ্চলের অর্ধেক ধান কর্তন হয়েছে। আমার জানামতে কৃষকরা প্রথমদিকে ৮০০ থেকে ৮৫০ টাকা মণ দরে ধান বিক্রি করেছেন।’