🕓 সংবাদ শিরোনাম

চুয়াডাঙ্গায় ৬ বছ‌রের শিশুকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত যুবক গ্রেফতারলাথি দেওয়া সেই শিক্ষক ছেলের আইনানুগ বিচার চান বাবামানিকগঞ্জে ধর্ষণ মামলায় চেয়ারম্যান গ্রেফতারহামলা ঠেকাতে প্রশাসন ব্যর্থ নাকি গাফিলতি, প্রশ্ন ইনুরগোপালগঞ্জে পিকআপ ভ্যান ও নসিমনের মধ্যে সংঘর্ষে নিহত ২লিটারে ৭ টাকা বাড়ল সয়াবিন তেলের দামযুবলীগ চেয়ারম্যানের নম্বর ক্লোন করে প্রতারণা, মূলহোতাসহ গ্রেফতার ২ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর বিকৃত ছবি শেয়ার করায় সাংবাদিক গ্রেপ্তারহিন্দু ভাই-বোনদের ভয় নাই, পাশি আছি: ওবায়দুল কাদেরসহিংসতায় দায়ীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

  • আজ বুধবার, ৪ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২০ অক্টোবর, ২০২১ ৷

বাউফলে সরকারী দশ লাখ টাকার গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ

BAUPHAL TREE NEWS
❏ বুধবার, এপ্রিল ২৮, ২০২১ বরিশাল

কৃষ্ণ কর্মকার, বাউফল (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার ধুলিয়া ইউনিয়নের ভেরনতলা বাজার থেকে চৌমোহনী সড়ক পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার পথের দুই পাশে সরকারী বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে নিয়ে গেছেন স্থানীয় প্রভাবশালী কয়েক ব্যক্তি।

ধুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রব কয়েক প্রভাবশালীর নাম উল্ল্যেখ করে গত ২৪ এপ্রিল এ সংক্রান্ত একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট দপ্তরে।

অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করা হয়, প্রায় আট-দশ বছর পূর্বে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে (এলজিইডি) তত্বাবধানে বিভিন্ন প্রজাতীর গাছের চারা রোপণ করা হয়েছিল। ইতিমধ্যে গাছগুলো বড় হয়ে ওই সড়কের সৌন্দর্য বর্ধনসহ পরিবশে ভারসাম্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। কয়েক দিন ধরে ধুলিয়া ইউনিয়নের পূর্ব চাঁদকাঠি গ্রামের আশ্রাফ চৌকিদারের ছেলে হারুন, শোয়েব ও আলাউদ্দিন হাওলাদারের ছেলে সহিদুল ইসলাম কোন প্রকার অনুমতি না নিয়েই প্রায় অর্ধশত বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে নিয়েছেন। যার স্থানীয় বাজার মূল্য প্রায় ১০লাখ টাকা। অভিযোগে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তপক্ষকে অনুরোধ জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, অভিযুক্ত ব্যক্তিরা প্রকাশ্যে গাছ গুলো নির্বিচারে কেটে নিলেও বাঁধা তো দুরের কথা তখন ভয়ে কেউ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে অবহিত করেন নি।

এ বিষয়ে চেষ্টা করেও অভিযুক্ত ব্যক্তিদের কোন বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) বাউফল উপজেলা প্রকৌশলী মো. সুলতান আহম্মেদের বলেন, অভিযোগ পেয়ে গাছগুলো দেখভালের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাকে তদন্ত করে আমার কাছে প্রতিবেদন জমা দেওয়া নির্দেশ দিয়েছি। প্রতিবেদন পাওয়ার পড়ে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন