🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ মঙ্গলবার, ১০ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২৬ অক্টোবর, ২০২১ ৷

কবিতা তুমি আমারে বাঁচতে দিলা না!

Mymensing news
❏ সোমবার, মে ৩, ২০২১ ময়মনসিংহ

কামরুজ্জামান মিন্টু, স্টাফ রিপোর্টারঃ  ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে সোহেল মিয়া (৩৫) নামে এক ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার হাতের তালুতে লেখা ‘কবিতা তুমি আমারে বাঁচতে দিলা না। তুই আমারে শেষ করে দিলে।’ আর কব্জির ওপরের অংশে লেখা- ‘কবিতা তুই আমারে বাঁচতে দিলে না।’

সোহেল উপজেলার তারুন্দিয়া ইউনিয়নের সরতাজবহেরা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা আবদুর রহিমের ছেলে। তিনি তারুন্দিয়া ইউনিয়নের সরতাজবহেরা বাজারে সোহেল কম্পিউটার নামের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতেন।

সোমবার (৩ মে) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ওই বাজারে সোহেল কম্পিউটার নামে তার দোকান থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। এর আগে দুপুর ২টার দিকে ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পায় নিহত সোহেলের ছোট ভাই জুয়েল।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দুপুর ২টার দিকে সোহেলের ছোট ভাই জুয়েল দোকানে গিয়ে গিয়ে দেখেন দোকান খোলা কিন্তু তার ভাই নেই। তখন দোকানের পেছনে রেস্ট করার অংশে গিয়ে দেখেন বড় ভাই সোহেলের লাশ আড়ার সঙ্গে ঝুলছে। এমতাবস্থায় জুয়েলের ডাক চিৎকারের স্থানীয় লোকজন এসে সোহেলকে ঝুলতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

নিহতের স্ত্রী আরিফা আক্তার বলেন, আমার সাথে আমার স্বামীর ঝগড়া কিংবা মনোমালিন্য ছিলোনা। আমার সাথে সবসময় ভালো ব্যবহার করতো। কোন নারীর সাথে সম্পর্ক ছিলো কিনা আমি জানিনা।

এ বিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  (ওসি) মো. আবদুল কাদির মিয়া বলেন, নিহত যুবকের হাতে কবিতা নামে এক নারীর কথা লেখা রয়েছে। প্রেমের সম্পর্কের টানা পোড়েনে আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে পারেন।

তিনি বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। তবে হাতে লেখা কবিতার সন্ধান করার চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন :