কুড়িগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধার অসুস্থ স্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চান

❏ মঙ্গলবার, মে ৪, ২০২১ রংপুর

স্টাফ রিপোর্টার: বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলীর স্ত্রী মোছাঃ রাবেয়া খাতুন বিনা চিকিৎসায় ধুকে ধুকে মারা যাচ্ছে। এ খবর পেয়ে মঙ্গলবার সরেজমিন নাগেশ্বরী উপজেলার ভিতরবন্দ ইউনিয়নের দেবেত্তর গ্রামে গিয়ে দেখা যায় মোছাঃ রাবেয়া খাতুন(৬০) শয্যাশায়ী।

তার বড় ছেলে আবুল কাশেম জানান গত ৯মাস ধরে তার মায়ের সারা শরীরে ব্যাথা ও বা হাত এবং পা নড়াচড়া করতে খুব কষ্ট হয়। দিন দিন খাবার রুচি কমে যাচ্ছে।

ভাতা পান না জানতে চাইলে আবুল কাশেম বলেন, আব্বা বেচে থাকতে ভাতার বিপরীতে সোনালী ব্যাংক থেকে তিন লাখ টাকা লোন নিয়ে ছোট বোনের বিয়ে দিয়েছে এবং কিছু দায় দেনা ছিল তা পরিশোধ করেছে। এখন ভাতা থেকে প্রতিমাসে ৮হাজার টাকা কাটে বাকী ৪ হাজার টাকা দেয় তাই দিয়ে মায়ের খাওয়া পরা ও চিকিৎসা করা হয়।

৬ পুত্র ১ কন্যা সন্তানের জননী রাবেয়া খাতুন “বলেন ভাই আমাকে বাচান”। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বলেন, আমাকে সাহায্য করুক। ছেলেদের বিয়ে হয়েছে তারা এখন সবাই পৃথক। বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী একজন ভ’মিহীন দীনমজুর ছিলেন। বসত বাড়ীর জায়গা টুকু ছাড়া আর কিছু নাই। তার মুক্তি বাতা নং-৬৬৮৭৩ আর সাময়িক সনদপত্র নং-কুড়িগ্রাম-৪০-১৪৮২ ।

যোগাযোগ করা হলে ভিতরবন্দ ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নাজিম উদ্দিন জানান, মরহুম বীব মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খুবই গরীব মানুষ ছিলেন, এখন তার স্ত্রী মরনাপন্ন আমি দাবী করছি তাকে সরকারী ভাবে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হোক।

নাগেশ্বরী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ডিপুটি কমান্ডার মতিয়ার রহমান নান্টু বলেন, আশরাফ আলী খুবই গরীব মানুষ ছিলেন। তার অসুস্থ স্ত্রীকে সরকারী ভাবে চিকিৎসা করার জন্য দাবী জানাচ্ছি।