২২ দিন পর সড়কে নেমেছে গণপরিবহন

bus
❏ বৃহস্পতিবার, মে ৬, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- লকডাউনের কারণে ২২ দিন বন্ধের পর গণপরিবহন চলাচল শুরু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (৬ মে) সকাল থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন রুটে চলছে বাস। বিভিন্ন টার্মিনাল থেকে যাত্রা শুরু করে রাজধানীর ভেতরে যাতায়াত করছে এগুলো।

চলমান লকডাউনের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলাচলের নির্দেশনা দেয় সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় আজ রাজধানীসহ সারা দেশে গণপরিবহন চলাচল শুরু হলো।

তবে গণপরিবহন খুললেও আন্তঃজেলা বাস খুলছে না এখনই। আগামী ১৬ মে মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়িয়ে বুধবার (৫ মে) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। সরকারি প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, শুধুমাত্র জেলার গাড়ি জেলাতে চলাচল করতে পারবে। আন্তঃজেলা বাসের পাশাপাশি বন্ধ রয়েছে যাত্রীবাহী ট্রেন ও নৌযান চলাচল।

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, এসব নিষেধাজ্ঞা আগামী ১৬ মে পর্যন্ত বহাল থাকবে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে এলে পরবর্তীতে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এদিকে সকাল থেকে রাজধানীর বেশ কয়টি এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বাসের জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন যাত্রীরা। বিশেষ করে অফিস যাওয়ার জন্য সকালে যারা রাস্তায় বের হয়েছেন তারাই বাসের জন্য অপেক্ষা করছেন। এছাড়া যাত্রীর চাপ কিছুটা কম। বাসগুলোতে পাশাপাশি দুই সিটের একটি খালি রেখে যাত্রী পরিবহন করতে দেখা গেছে।

ঢাকার বাইরেও বিভাগীয় শহরগুলোতে বাস চলাচলের খবর পাওয়া গেছে।

এর আগে বুধবার (৫ মে) ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির পক্ষ থেকে পরিবহনের মালিক, শ্রমিক ও যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য বেশ কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে- মাস্ক ছাড়া কোনো যাত্রী গাড়িতে ওঠাতে পারবে না এবং গাড়ির স্টাফদের মালিক মাস্ক সরবরাহ করবেন। গাড়িতে সিটের অর্ধেক যাত্রী বহন করতে হবে । লকডাউনে মালিক-শ্রমিকেরা মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। এক্ষেত্রে রুট মালিক সমিতি/পরিবহন কোম্পানির জিপির নামে কোনো ধরনের অর্থ গাড়ী থেকে আদায় করতে পারবে না।

ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ এক বিবৃতিতে জানান, সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বৃহস্পতিবার (আজ) থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকা মহানগরসহ সব জেলা শহরের মধ্যে গণপরিবহন চলাচল করবে। আমরা যে সব নির্দেশনা দিয়েছি, সে অনুযয়ী গাড়ি চালানোর জন্য ঢাকা মহানগরে চলাচলকারী সব রুট মালিক সমিতি/পরিবহন কোম্পানির প্রতি আহ্বান জানানো হচ্ছে।