কেরানীগঞ্জে একদিনে মিলল ৩ লাশ

Lash_Uddar
❏ শনিবার, মে ৮, ২০২১ ঢাকা

মাসুম পারভেজ, কেরানীগঞ্জ- ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ঝিলমিল আবাসিক এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় সিএনজির ড্রাইভার ও কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন এক যুবক আত্মহত্যা এবং আতাশূরে এক দারোয়ানকে ছুরিকাঘাতে হত্যাসহ একদিনে তিনটি লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ঝিলমিল আবাসিক এলাকায় পাসপোর্ট অফিসের সামনে রাত একটার দিকে রাস্তার রোড ডিভাইডারের সাথে সিএনজি ধাক্কা লেগে গুরুতর আহত মনসুর তালুকদার(৫০) কে মিটফোর্ড হাসপাতালে ভর্তি করলে তিনি সেখানে মারা যান। পেশায় সিএনজি চালক মনসুরের পিতার নাম শাহ আলম তালুকদার, সে মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ী থানা আউটশাহী গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই জুলফিকার আলী বলেন, মুন্সিগঞ্জ থেকে যাত্রী নিয়ে ঢাকায় যাত্রী নামিয়ে ফেরার পথে ঝিলমিল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনটি লাশই পুলিশ সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এছাড়া জিনজিরা হাউলী এলাকায় মাহাবুব (১৮) নামের এক যুবক গতকাল রাতে স্ত্রীর ওড়না গলায় পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। নিহত মাহাবুব নরসিংদী রায়পুরা আব্দুল আউয়াল মিয়ার ছেলে। মাহবুব ও তার স্ত্রী দুজনেই জিনজিরা জনি টাওয়ারের পাশে বি প্লাস মার্কেটে চাকরি করতো। ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের জের ধরে সে আত্মহত্যা করেছে।

এছাড়া কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন জিনজিরা ইউনিয়নের আতাশূরে রতন মিয়ার সাইডে একটি গোডাউনের দারোয়ান শামসুল হক (৪৪) কে গতকাল রাতের কোনো এক সময় কে বা কারা ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে।

নিহত শামসুল হক চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গড়াই পাড়া হাজী মোসলেম উদ্দিনের ছেলে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে রাতে কোনো সংঘবদ্ধ চোর বা ডাকাতের দল গোডাউনে চুরি করতে আসলে শামসুল হক বাধা দেয়ায় তাকে হত্যা করা হয়েছে।

এ বিষয় কেরানীগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে মডেল থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মিডফোর্ড হাসপাতালে মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। ঘটনাস্থলের আশে পাশের সিসিটিভির ফুটেজ আমরা সংগ্রহ করেছি, সেগুলো খঁতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।