জামিন অধিকার, দয়া-মায়ার বিষয় নয় : ড. কামাল

dr.-kamal
❏ শনিবার, মে ৮, ২০২১ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ছাত্রদের জামিন দেয়া উচিত। জামিন অধিকারের বিষয়, কোনো দয়া-মায়ার বিষয় না। ছাত্র সমাজ সময় উপযোগী বিষয়গুলো নিয়ে জনমত গঠন করে, আন্দোলন করে। এগুলোকে আমরা সব সময় উৎসাহিত করেছি। তাদের অবশ্যই জামিন দেয়া উচিত।

শনিবার (৮ মে) দুপুরে ‘প্রধান বিচারপতির কাছে চিঠি এবং গ্রেপ্তার হওয়া ছাত্রদের ঈদের আগেই জামিনে মুক্তির দাবিতে নাগরিক সংবাদ সম্মেলন’-এ ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

গত কয়েক মাসে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনসহ বিভিন্ন মামলায় দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৫৯ জন ছাত্রকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের ঈদের আগে মুক্তি দিতে প্রধান বিচারপতিকে চিঠি দিয়েছে নাগরিক সমাজ।

ড. কামাল হোসেন বলেন, নিম্ন আদালতগুলো এখানে একটি সাহসী ভূমিকা রেখেছে। আমাদের মনে আছে, অতীতে ব্যাপক আন্দোলনের সময় নেতাদের বক্তব্যের কারণে জেলে নেয়া হতো। তখন আবেদন করলে সঙ্গে সঙ্গে জামিন দেয়া হতো। আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা করা হলো, মানুষজনকে কারান্তরীণ করে রাখা হলো। তখন এই জামিনের যে একটি শক্তি ছিল, তখন সেটা আমরা দেখিয়েছিলাম।

তিনি বলেন, যাকেই ধরা হোক- সঙ্গে সঙ্গে নিম্ন আদালত জামিন দিয়ে দিতেন, হাইকোর্টে আসা লাগত না।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আসিফ নজরুল, মুক্তিযোদ্ধা শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন লেখন নৃবিজ্ঞানী রেহনুমা আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, মুক্তিযোদ্ধা ইসতিয়াক আজিজ উলফাত, ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর।