গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলা, নিহত অন্তত ২১


❏ মঙ্গলবার, মে ১১, ২০২১ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- কয়েক দিনের টানা উত্তেজনার পর অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই হামলায় শিশুসহ অন্তত ২১ জন নিহত হয়েছে। ইসরায়েলের দাবি দাবি হামাস রকেট হামলা চালানোর পর বিমান অভিযান শুরু করে তারা। এদিকে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন উত্তেজনা কমাতে উভয় পক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

পবিত্র রমজান মাসের শেষ শুক্রবার অর্থাৎ জুমাতুল বিদা উপলক্ষে হাজার হাজার ফিলিস্তিনি অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদে জড়ো হলে তাদের ওপর অভিযান চালায় ইসরায়েলি পুলিশ। পরদিন পবিত্র শবে কদরের রাতেও তাদের উপর তাণ্ডব চালানো হয়। এতে শত শত ফিলিস্তিনি আহত হয়েছে।

গত কয়েক দিন ধরে মুসল্লিদের ওপর হামলার পর সোমবার সকালে পবিত্র আল আকসা মসজিদ কম্পাউন্ডে অভিযান চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। এ সময় তারা মসজিদ এলাকা ঘেরাও করে রাখে। মুসল্লিদের ওপর রাবার কোটেড বুলেট, টিয়ার গ্যাস ও সাউন্ড বোমা নিক্ষেপ করে। এতে শতাধিক ফিলিস্তিনি আহত হয়।

সোমবার রাতে ইসরায়েলকে লক্ষ্য করে রকেট হামাস হামলা চালায় ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস। এর জবাবে গাজা উপত্যকা লক্ষ্য করে বিমান হামলা শুরু করে ইসরায়েলি বাহিনী। ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর দাবি বিমান হামলায় হামাসের অন্তত তিন সদস্যের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে রকেট হামলার পর ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু গাজার শাসক দল হামাসকে সতর্ক করেছেন।

নেতানিয়াহুর অভিযোগ, হামাস চূড়ান্ত সীমা অতিক্রম করে রকেট হামলা চালিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘ইসরায়েলের ওপর যারাই হামলা করুক না কেন এর চরম মূল্য দিতে হবে।’

ইসরায়েলি সেনাবাহিনী বলছে, গাজা থেকে ছোড়া একটি ট্যাংকবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে দেশটির দক্ষিণের এক নাগরিক আহত হয়েছে।

হামাসের সামরিক শাখার মুখপাত্র আবু ওবায়দা জেরুজালেমে ইসরায়েলের তৎপরতাকে ‘সন্ত্রাস’ ও ‘আগ্রাসন’ আখ্যা দিয়েছেন।

ক্ষেপণাস্ত্র হামলা নিয়ে তিনি বলেন, ‘বুঝতে হবে, এটা শত্রুদের জন্য আমাদের একটি বার্তা।’

আবু ওবায়দা সর্তক করে বলেন, আল-আকসা মসজিদ চত্বরে ইসরায়েল আরও বাহিনী মোতায়েন করার পাশাপাশি ফিলিস্তিনিদের ওপর অত্যাচার অব্যাহত রাখলে এমন হামলা আরও চালানো হবে।