🕓 সংবাদ শিরোনাম

করোনাকালে নার্সদের উৎসাহ-অনুপ্রেরণা দিতে বিভিন্ন হাসপাতালে ছুটে যাচ্ছেন মহাপরিচালকপ্রকাশ্যে একই পরিবারের ৩ জনকে গুলি করে হত্যা, হামলাকারী এএসআই আটকযমুনা নদীর তীররক্ষা বাঁধের নির্মাণ কাজ শুরু হবে ৬ মাসের মধ্যেপাবনার চাটমোহরে সড়ক দুর্ঘটনায় বৃদ্ধের মৃত্যুআশুলিয়ায় মহাসড়ক থেকে শ্রমিকদের সরাতে পুলিশের টিয়ার শেল-জলকামান, নিহত ১দিনেদুপুরে প্রকাশ্যে গুলি করে একই পরিবারের ৩ জনকে হত্যানেতানিয়াহুর জন্য ১০ বছরের কারাদণ্ড অপেক্ষা করছে: আইনজীবীদক্ষিণ কেরানীগঞ্জে ১৯ কেজি গাঁজাসহ আটক ৩শায়েস্তাগঞ্জে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ যুবকের মর্মান্তিক মৃত্যুটিকার ঘাটতি দূর না হলে সামনে বিপদ: জাতিসংঘ মহাসচিব

  • আজ রবিবার, ৩০ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৩ জুন, ২০২১ ৷

আগুন নিয়ে খেলবেন না: নেতানিয়াহুকে হামাসপ্রধান


❏ রবিবার, মে ১৬, ২০২১ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- ফিলিস্তিনিদের ওপর অব্যাহত ইসরাইলি আগ্রাসনের নিন্দা জানিয়েছেন হামাস প্রধান ইসমাইল হানিয়া। তিনি ইসরাইল প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে হুশিয়ার করে বলেন, ইসরাইলিরা ভেবেছিল তারা আল–আকসা মসজিদ ধ্বংস করে দিতে পারবে। ভেবেছিল, তারা আমাদের জনগণকে গৃহহীন করতে পারবে। আমি নেতানিয়াহুকে বলছি— আগুন নিয়ে খেলবেন না।’

কাতারের রাজধানী দোহায় হামাস প্রধান এসব কথা বলেন।

এদিকে গাজায় হামাস প্রধান ইয়াহিয়া আল সিনওয়ারের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী।

রোববার গাজায় হামাসের রাজনৈতিক ও সামরিক শাখার প্রধান ইয়াহিয়া আল সিনওয়ারের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। খবর আলজাজিরার।

ইয়াহিয়া আল সিনওয়ার ২০১৭ সাল থেকে হামাসের ওই শাখার প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তবে হামলায় এ নেতার কোনো ক্ষতি হয়েছে কিনা বা তিনি হামলার সময় বাড়িতে অবস্থান করছিলেন কিনা তা নিশ্চিত করা হয়নি।

স্থানীয় সময় আজ রোববার এ হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। হামাসও তেলআবিবে রকেট হামলা চালিয়েছে।

শনিবার ইসরাইলি বাহিনী গাজায় অবস্থিত ১২ তলা একটি ভবন হামলা চালিয়ে গুঁড়িয়ে দেয়। ওই ভবনে এপি ও আলজাজিরার কার্যালয় ছিল। ইসরাইলি সেনাবাহিনীর দাবি, আল জালা নামে ওই ভবন তাদের হামলার লক্ষ্যবস্তু ছিল। সেখানে হামাসের সামরিক বাহিনীর কার্যালয় রয়েছে। এ কারণে হামলার আগে তারা ওই ভবন থেকে মানুষকে সরে যেতে সতর্ক করেছিলেন। হামলার নিন্দা জানিয়েছে এপি।
হামলার পরে আজ সকালেই তেলআবিব ও ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলের শহরগুলোয় রকেট হামলা চালিয়েছে হামাস।

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্যসেবা কর্মীরা জানান, আরেকটি বিমান হামলায় গাজায় একজন স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ নিহত হয়েছেন। হামলায় আহত হয়েছেন তার স্ত্রী ও মেয়ে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, দুপক্ষের লড়াই সপ্তম দিনে গড়ালেও থামার কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

ভূমধ্যসাগরের তীরবর্তী ফিলিস্তিনি ছিটমহলটিতে রোববার ইসরাইলি হামলায় অন্তত চার জন নিহত ও বহু আহত হয়েছেন। ছিটমহলটিজুড়ে রাতভর ব্যাপক বোমাবর্ষণের শব্দ পাওয়া গেছে।

তেল আবিবের দিকে ছুটে আসা রকেটের জন্য বাজানো সাইরেনের শব্দে ইসরাইলিরা হুড়োহুড়ি করে ভূগর্ভস্থ আশ্রয় কেন্দ্রের দিকে ছুটতে শুরু করেন, এ সময় ১০ জনের মতো লোক আহত হন বলে ইসরাইলি চিকিৎসা কর্মীরা জানিয়েছেন।

শনিবার রাতে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, ইসরায়েল এখনও এই অভিযানের মধ্যবর্তী পর্যায়ে রয়েছে, এটা এখনও শেষ হয়নি এবং যতদিন প্রয়োজন হয় ততদিন অভিযান চলবে।

গত এক সপ্তাহে গাজায় ইসরাইলি বর্বরতায় অন্তত ১৪৯ ফিলিস্তিনি মারা গেছেন। এর মধ্যে ৪১ শিশুও রয়েছে। আহত হয়েছেন ৯৫০ জন।

আর অধিকৃত পশ্চিমতীরে ইসরাইলি বাহিনীর হামলায় ১৩ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

ফিলিস্তিনিদের পাল্টা হামলায় ১০ ইসরাইলি নিহত হয়েছেন। ইসরাইল দাবি করেছে, এ পর্যন্ত শতাধিক রকেট ছুড়েছে হামাস।

এদিকে ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংকট নিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ রোববার (বাংলাদেশ সময় সোমবার) বৈঠক করতে যাচ্ছে।