🕓 সংবাদ শিরোনাম

মাদারীপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় আহত শ্রমিকলীগ সভাপতির মৃত্যুভয়ংকর হচ্ছে খুলনা বিভাগ, একদিনেই রেকর্ড ৩২ জনের মৃত্যুটাঙ্গাইলে নতুন করে ১৪৯ জন করোনায় আক্রান্ত, ৩ জনের মৃত্যুইভ্যালিসহ ১০ ই-কমার্সে কেনাকাটায় নিষেধাজ্ঞা দিলো ব্র্যাক ব্যাংকনওমুসলিম ওমর ফারুক হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন-সংবাদ সম্মেলন, ৬ দফা দাবিআ.লীগ অতীতে জনগণের সঙ্গে ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে : কাদের২৪ ঘন্টায় রাজশাহী মেডিকেলের করোনা ওয়ার্ডে ১৬ জনের মৃত্যুইভ্যালির সম্পদ ৬৫ কোটি, দেনার পরিমাণ ৪০৩ কোটি ৮০ লাখ টাকাবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে কঠোর অবস্থানে পুলিশ

  • আজ বুধবার, ৯ আষাঢ়, ১৪২৮ ৷ ২৩ জুন, ২০২১ ৷

উচ্চ জোয়ারের তান্ডবে লন্ডভন্ড পটুয়াখালীর উপকূল, পানিবন্দি ১১৫টি গ্রামের মানুষ

water
❏ বুধবার, মে ২৬, ২০২১ বরিশাল

জাহিদ রিপন, পটুয়াখালী- ঘূর্ণিঝড় ইয়াশের প্রভাবে তেমন কোন ক্ষতি না হলেও উচ্চ জোয়ারের তান্ডবে লন্ডভন্ড হয়ে পড়েছে পটুয়াখালীর উপকূলীয় এলাকা। পুরনো ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি প্রবেশ করে পানিবন্দি হয়েছে পড়েছে জেলার ১১৫টি গ্রামের প্রায় ৩ লক্ষ মানুষ। নতুন করে ভাঙন দেখা দিয়েছে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার বেড়িবাঁধে। ভেসে গেছে ২৬শ’ ৩২টি পুকুর ও ৫শ’ ৯০টি মাছের ঘের। এতে মৎস্য খাতে ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৫০ কোটি টাকার।

পূর্নিমার জোয়ে’র প্রভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে ৩ থেকে ৪ ফুট উচ্চ জোয়ারের পানিতে জেলার সদর উপজেলায় ১৫টি, দুমকি উপজেলায় ১২টি, দশমিনায় ১০টি, মির্জাগঞ্জে ১৫টি, গলাচিপায় ৯টি, বাউফল ১২টি, কলাপাড়ার ২৪টি ও রাঙ্গাবালী উপজেলার ১৮টি গ্রামের মানুষ পানবন্দি হয়ে পড়ে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে এসব গ্রামের মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে। ওই রাতেই দ্বিতীয় দফা জোয়ারের তান্ডবে অনেক ঘরেই জ্বলেনি উনুন। শিশু-বয়স্কসহ অসংখ্য মানুষ রাত কাটিয়েছেন না খেয়ে। পানিবন্দি এসব এলাকার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থাও  হয়ে পড়েছে বিচ্ছিন্ন।

উচ্চ জোয়ারের তান্ডবে নতুন করে ভাঙন দেখা দিয়েছে কলাপাড়ার নিজামপুরের সদ্য র্নিমিত বেড়িবাঁধে। বাঁধের ৬টি পয়েন্টে ভাঙন দিয়ে পানি প্রবেশ করে প্লাবিত হচ্ছে সুধীরপুর, নিজামপুর, কমরপুরসহ আশেপাশের এলাকা। যেকোন সময় ভেঙে যেতে পারে নীলগঞ্জ ইউনিয়নের নিজকাটা সুইজগেঠের বাঁধ।

ভাঙন দেখা দিয়েছে কলাপাড়ার চম্পাপুর ইউনিয়নের দেবপুর বেড়িবাঁধে। ইউপি চেয়ারম্যান রিন্টু তালুকদার জানান, মঙ্গলবার দুপুরে প্রায় আড়াই কিলোমিটার বেড়িবাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয়েছে দেবপুর, চালিতাবুনিয়া, পাঁচজুনিয়া।

লালুয়ার চান্দুপাড়ার অংশের বেড়িবাঁধে নতুন করে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এমন তথ্য দিলেন লালুয়ার সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মীর তারিকুজ্জামান তারা। তিনি বলেন, এত করে লালুয়ার অনেক গ্রাম নতুন করে প্লাবিত হচ্ছে।

মৎস্য অফিস জানায়, উচ্চ জোয়ারে বেড়িবাঁধের বাহিরে ও ভেতরে ২ হাজার ৬’শ ৩২টি পুকুর ও ৫৯০টি মাছের ঘের তলিয়ে মাছ ভেসে গেছে। এসব ঘের ও পুকুরের মালিকরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছেন। রাঙ্গাবালী চরলতা গ্রামের মাছের ঘের মালিক দবির গাজী জানান, চলতি বছর ঋন নিয়ে মাছের ঘের করে বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৬ লাখ টাকার মাছ চাষ করেছেন। তার ঘেরের সব মাছ ভেসে গেছে।

পটুয়াখালী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোল্লা এমদাদুল্লাহ বলেন, সরজমিন পরিদর্শনে দেখেছি কিছু পুকর ও ঘের মালিক জাল দিয়ে মাছ রক্ষা করতে পেরেছে। কলাপাড়া ও রাঙ্গাবালী উপজেলার মৎস্য চাষীরা বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এতে প্রায় ৪৮ কোটি ৯১ লক্ষ টাকার মাছের ক্ষতি হয়েছে। এরমধ্যে ৪৬ কোটি চিংড়ি ঘেরের ক্ষতি হয়েছে। তবে ক্ষতির পরিমান আরও বাড়বে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড কলাপাড়া সার্কেলের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হালিম ছালেহী জানান, যে সকল বেড়িবাঁধ ঝুঁকিতে রযেছে সেখানে বালু ভর্তি জিওব্যাগ ফেলে বাঁধ রক্ষা করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

ক্ষয়ক্ষতির সঠিক পরিসংখ্যান নিরুপন করে ক্ষতিগ্রস্থ এসব পরিবারকে সহযোগিতা করা হবে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।