• আজ বুধবার, ৯ আষাঢ়, ১৪২৮ ৷ ২৩ জুন, ২০২১ ৷

মানিকগঞ্জে দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে হত্যা: আসামি গ্রেফতার

Manikgonj news
❏ বুধবার, মে ২৬, ২০২১ ঢাকা

দেওয়ান আবুল বাশার, স্টাফ রিপোর্টার: মানিকগঞ্জের সদর উপজেলার পশ্চিম শানবান্দা গ্রামের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সাত বছরের সিনহাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে ১৪ বছরের কিশোর।

বুধবার (২৬ মে) দুপুরে সদর থানায় এক সংবাদ সম্মলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) ভাস্কর সাহা, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আকবর আলী খান, ওসি তদন্ত মিজানুর রহমান, এসআই মো: টুটুল উদ্দিন ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো:জামিনুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

মানিকগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও তদন্ত) মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বলেন, কিশোর শাকিল ও শিশু সিনহার বাড়ি পাশাপাশি এবং পরস্পরের খেলার সাথী ছিলো। ২১ মে বিকেল তিনটার দিকে কিশোর শাকিল খেলার কথা বলে শিশু সিনহাকে চকের মাঝখানে একটি কাঠবাগানে নিয়ে যায়। বাগানের আশেপাশে কেউ না থাকায় শাকিল সিনহাকে ধর্ষণ করে।

এই ঘটনা সবাইকে বলে দিবে শোনার পর শাকিল গলা চেপে শিনহাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এরপর, গামছা দিয়ে একটি মেহগনি গাছের চারার সাথে গলা বেধে রাখে এবং লাশ গুম করতে শুকনো পাতা দিয়ে ঢেকে রাখে। শিনহার কানে থাকা স্বর্ণের দুল গলার রূপার চেইন নিয়ে যায়। একদিন পর, সেখান থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

গত ২২ মে শিনহার নানা আব্দুল বারেক মানিকগঞ্জ সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ময়না তদন্ত রিপোর্টে, ধর্ষণের পর হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়। এরপর, অভিযান চালিয়ে সন্দেহজনক ভাবে শিনহার খেলার সাথী শাকিলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জ্ঞিাসাবাদের একপর্যায়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে শাকিল পুলিশের কাছে ধর্ষণ ও হত্যার কথা স্বীকার করে।

নিহত সিনহা স্থানীয় শিমুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী। অপরদিকে ঘাতক শাকিল একই এলাকার প্রবাসী শফিকুল ইসলামের ছেলে।