বগুড়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় ছাত্রলীগ নেতাসহ আহত ৪

Bagura news
❏ মঙ্গলবার, জুন ১, ২০২১ রাজশাহী

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার শেরপুর পৌর শহরের বিকাল বাজার এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের মারধর ও যমুনা ইলেক্ট্রনিক্সের শো-রুম ভাংচুরের ঘটনায় ৩১ মে সোমবার রাতে শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

মারধরের ঘটনায় আহতরা হলেন- শহর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৌরভ আহম্মেদ সুমন, যমুনা শো-রুমের স্বত্তধিকারী মানিক শেখ ও কর্মচারী ফেরদৌস বাবু।

অভিযোগে জানা যায়, শেরপুর পৌর শহরের ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বদরুল ইসলাম পোদ্দার ববির ছেলে আবির হোসেন বনি পুর্ব শত্রুতার জের ধরে টাউন কলোনী এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে মো. হাসানকে পৌর শহরের বিকাল বাজার রোড এলাকায় ৩১ মে সোমবার বিকাল ৪ টায় একা পেয়ে তাকে বেধড়ক মারধর করে। এ সময় ব্যাংকের নীচ তলায় থাকা যমুনা ইলেক্ট্রনিক্সের শো-রুমের মালিক মানিক শেখ এগিয়ে আসে এবং মারামারি করতে নিষেধ করে বনিকে শান্ত করার জন্য তার শো-রুমে নিয়ে যায়।

এতে বনি রাগান্বিত হয়ে মানিক শেখ কে মারধর করলে মানিকের শো-রুমে থাকা লোকজন বনিকেও মারধর করলে বনি চলে যায়। কিছু সময় পরে বনি ৭/৮ জন সন্ত্রাসীকে সাথে নিয়ে দেশীয় ধারালো অস্ত্র নিয়ে যমুনা শো-রুমের সামনে মহড়া দিয়ে দোকান ভাংচুর করতে থাকে। এতে দোকানীরা বাঁধা দিতে আসলে সন্ত্রাসীরা দোকানীদের এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে।

এ ঘটনায় শো-রুমের কর্মচারী ফেরদৌস বাবু, শহর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৌরভ আহম্মেদ সুমনসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়। এতে বিক্ষুব্ধ হয়ে আশেপাশের মার্কেট ব্যবসায়ীরা এগিয়ে এসে সন্ত্রাসীদের মারপিট শুরু করলে তারা পালিয়ে যায়।

এদিকে বাবুর পিঠে ধারালো অস্ত্রের কোপে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হওয়ায় চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ৩১ মে সোমবার রাতে যমুনা ইলেক্ট্রনিক্স শো-রুমের স্বত্তাধিকারী মানিক শেখ বাদি হয়ে শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।