ভারতে কারাভোগ শেষে বেনাপোল দিয়ে ফিরলেন তরুণীসহ তিনজন

benopole
❏ সোমবার, জুন ৭, ২০২১ খুলনা

মহসিন আলী, বেনাপোল প্রতিনিধি: ভারতে ২ বছর কারাভোগ শেষে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে ফিরে এসেছে এক তরুণীসহ ৩ বাংলাদেশি। রোববার রাতে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদের হস্তান্তর করে।

ফেরত আসারা হলেন- ফরিদপুরের সদরপুর থানার জরিপডাংগী গ্রামের জয়নাল হোসেনের ছেলে ইমরান হোসেন (২৬), ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার বাঞ্ছারামপুর থানার গঙ্গানগর গ্রামের শহিদ মিয়ার ছেলে এলাহী মিয়া (৫৫) ও খুলনার দিঘলিয়া থানার আলী মোল্যার মেয়ে তাছলিমা আক্তার (২১)।

ফেরত আসা এলাহী মিয়া বলেন, অভাব অনটনের সংসারে দেশে কাজ না পেয়ে দালালদের মাধ্যমে ভারত যাই। ভারতের রাজস্থানে রাজমিস্ত্রির কাজ করাকালে পুলিশ তাদের আটক করে আ দালতে সোপর্দ করে। আদালত তাদের ২ বছরের সাজা প্রদান করেন। দুই বছর কারাভোগ শেষে আরোয়া ডিটেক্টর নামে একটি শেল্টার হোমে ৬ মাস থাকার পর আজ দেশে ফিরছি।

তাছলিমা জানান, তার বোন দীর্ঘ দিন ভারতে থাকে। তার মাধ্যমে তিনি চোরাইপথে ভারত যান। মুম্বাই পুলিশের কাছে ধরা পড়ে কারাভোগ করেছেন।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব বলেন, ভালো কাজের প্রলোভনে এরা বিভিন্ন সীমান্তপথে ভারত পাড়ি জমায়। সেখানে কাজ করার সময় তারা আটক হয়। পরে তাদের ২ বছরের জেল হয়। কারাভোগ শেষে সেখান থেকে একটি শেল্টার হোমের রাখা হয় তাদের। উভয় দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হস্থক্ষেপে ভারত সরকারের দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে তারা দেশে ফেরে। ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদের বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই সোহেল বলেন, সোমবার ফেরত আসা তিনজনকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে রাখা হবে। এরপর যদি কোনো এনজিও সংস্থা গ্রহণ করে তাহলে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হবে। তা না হলে নিজ উদ্যোগে তারা বাড়ি ফিরে যাবে।