• আজ মঙ্গলবার, ১৯ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ৩ আগস্ট, ২০২১ ৷

শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতনকারী সেই মা-ছেলে কারাগারে

atok
❏ শনিবার, জুন ১২, ২০২১ ময়মনসিংহ

কামরুজ্জামান মিন্টু, স্টাফ রিপোর্টার- ময়মনসিংহের গৌরীপুরে রিফাত (৯) নামে এক শিশুকে মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে (ফেসবুক) ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওতে দেখা গেছে শিশুটিকে মোটা দড়ি দিয়ে গাছে বেঁধে নির্যাতন করছেন এক নারী ও তার ছেলে।

নির্যাতনকারীরা হলেন- উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়নের তাতকুড়া গ্রামের মৃত বারেকের স্ত্রী ফাতেমা বেগম ও তার ছেলে হিমেল।

নির্যাতনের শিকার রিফাত রামগোপালপুর ইউনিয়নের মধুবন আদর্শ গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় রামগোপালপুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র।

গত শুক্রবার (৪ জুন) দুপুরে উপজেলার রামগোপালপুর ইউনিয়নের মধুবন আদর্শ গ্রামে (গুচ্ছগ্রাম) শিশুকে নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে দেখতে পেয়ে বৃহস্পতিবার (১০ জুন) মা ও ছেলেকে আটক করে পুলিশ।

শুক্রবার (১১ জুন) ময়মনসিংহ চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তোলা হলে বিচারক দেওয়ান মনিরুজ্জামান তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বিষয়টি সময়ের কন্ঠস্বরকে নিশ্চিত করেছেন কোর্ট ইন্সপেক্টর প্রসুন কান্তি দাস।

নির্যাতনের শিকার রিফাতের বাবা সুরুজ মিয়া জানান, ফাতেমা বেগমের ভাই হিমেল আম পাড়ার কথা বলে ডেকে দিয়ে যায় রিফাতকে। আম পাড়তে উঠার পর গাছ থেকে নামিয়ে রিফাতকে মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে রশি দিয়ে গাছে বাঁধা হয়। এরপর চালানো হয় নির্যাতন। এরপর রিফাত বেশ কয়েকদিন জ্বরে ভুগেছে।

এ বিষয়ে গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হালিম সিদ্দিকী বলেন, এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার শিশু নির্যাতনকারী ফাতেমা বেগম ও তার ছেলে হিমেলকে আটকের পর ওইদিন রাতেই শিশু রিফাতের বাবা সুরুজ মিয়া বাদী হয়ে মা-ছেলেকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা দায়ের করেন। পরদিন শুক্রবার বিকেলে আদালতের নির্দেশে দুইজনকেই জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন