• আজ বুধবার, ১৩ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ২৮ জুলাই, ২০২১ ৷

অর্থাভাবে চিকিৎসা বন্ধ, এতিম কিশোর বাঁচতে চায়…

child
❏ রবিবার, জুন ১৩, ২০২১ রংপুর

অনিল চন্দ্র রায়, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি- বাবা-মা নেই, ঠাই হয়েছে নানার বাড়ীতে। এতিম অসুস্থ কিশোর বাঁচতে চায়। চিকিৎসার অভাবে দিন দিন মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে কিশোর আকিজ মিয়া (১৪)। সবার সহযোগীতায় এতিম অসুস্থ কিশোর সুস্থ স্বাভাবিক জীবন-যাপন করতে চায়। তাই প্রধানমন্ত্রীসহ দেশের বিত্তবানদের কাছে আর্থিক সহযোগীতা চেয়েছেন কিশোর আকিজ ও তার দিনমজুর নানা শামছুল হক।

ফুলবাড়ী উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের তালকু শিমুলবাড়ী গ্রামের দিনমজুর শামছুল হকের নাতি কিশোর আজিক। বাবা কফিল উদ্দিন হার্ট এ্যাটাকে মারা যান ১০ বছর আগে। এর কিছুদিন পর মা আমেনা বেগম অন্যত্র বিয়ে করে সংসার পেতেছেন। আর আকিজ মিয়া বিনা চিকিৎসায় ধুকে ধুকে মৃত্যুর প্রহর গুনছে নানা- নানীর সংসারে।

চিকিৎসার অভাবে তার মাথা ফুলে স্বাভাবিকের তুলনায় অনেকটা বড় হয়েছে। ছোট হয়ে গেছে চোখ দুটো। সব সময় দু-চোখ দিয়ে পানি ঝরছে। মাথার ভাড়ে হাঁটতে না পারলেও অর্থাভাবে চিকিৎসা হচ্ছে না তার।

আকিজের নানা শামছুল হক জানান, আকিজের বয়স যখন চার বছর তখন মেয়ে-জামাইসহ স্ব-পরিবারে ভারতের দিল্লীতে ইট ভাটায় কাজ করতে যান। সেখানে কয়েক মাস কাজ করার পর হঠাৎ প্রচন্ড মাথা ব্যাথায় অসুস্থ্য হয়ে পড়েন আকিজ। ডাক্তারের কাছে গেলে ডাক্তার পরীক্ষা নিরীক্ষা করে অপারেশন করতে বলেন। কিন্তু অর্থাভাবে অপারেশন করা সম্ভব না হওয়ায় সাধারণ চিকিৎসা চলতে থাকে।

এর মধ্যে হঠাৎ করে হার্ট এ্যাটাকে মারা যান জামাতা কফিল উদ্দিন। উপায়ান্তর না দেখে স্ব-পরিবারে দেশে ফিরে আসেন। সেই থেকে প্রায় ১০ বছর পেরিয়ে গেলেও টাকার অভাবে আকিজের উন্নত চিকিৎসা করানো সম্ভব হয়নি।

শামছুল হক আরও বলেন, বাড়ী ভিটা ছাড়া কিছইু নাই আমার। দুই মেয়ে আর দুই ছেলে যার যার মত আলাদা সংসার করছে। আগে ঠেলাগাড়ী চালাতাম কিন্তু বৃদ্ধ বয়সে এখন আর পারিনা। অন্যের জমিতে দিনমজুরী করে যা পাই তা দিয়ে নাতীসহ ৩ জন কোন রকমে বেঁচে আছি। অসুস্থ্য নাতীর চিকিৎসার খরচ আমি কোথায় পাবো?

আপডেট: আপডেট তারিখ:১৬–০৬-২১ ইং: আলহামদুল্লিাহ তার চিকিৎসার সব ব্যাবস্থা হয়ে গেছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন