🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শনিবার, ৯ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ২৪ জুলাই, ২০২১ ৷

কুপে পড়ে যাওয়া তিন শিশুকে উদ্ধার করতে গিয়ে একশিশুসহ যুবকের মর্মান্তিক মৃত্যু

গভীর নলকুপ
❏ শুক্রবার, জুন ২৫, ২০২১ আলোচিত বাংলাদেশ, রংপুর

রংপুর প্রতিনিধি, সময়ের কণ্ঠস্বরঃ রংপুরের পীরগঞ্জে গভীর নলকূপের পানি নিষ্কাশনের জন্য তৈরি করা কূপে (কুয়া) পড়ে যাওয়া তিন শিশুকে উদ্ধার করতে গিয়ে প্রতিবেশী মিজানুর রহমান মিলন নামের এক যুবকসহ কুপে পড়ে যাওয়া জিম নামের ৮ বছর বয়সী এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু্র ঘটনা ঘটেছে।

আজ শুক্রবার (২৫ জুন) দুপুরে উপজেলার জয়পুরপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুরো এলাকাজুড়ে চলছে শোকের মাতম।

প্রত্যক্ষ্যদর্শী ও স্থানীয় সুত্রের বরাত দিয়ে পীরগঞ্জ থানার পরিদর্শক সরেশ চন্দ্র জানান, খেলার সময় হঠাত করে গভীর কুপে পড়ে যাওয়া তিন শিশুর চিৎকার শুনে নিমিষেই ছুটে আসে মিলন। সময় নষ্ট না করেই হাতের কাছে থাকা মই নিয়ে গভীর কুপের মধ্যে নেমে একে একে দুইজনকে উদ্ধার করেছিলো ঐ যুবক। কিন্তু তৃতীয় শিশুটিকে উদ্ধার করতে নামার সময় ঘটে বিপত্তি। আকস্মিক কুপে নামার জন্য ব্যবহৃত মইটি ভেঙ্গে পড়লে ঐ যুবকসহ জিম নামের ঐ শিশুটির মৃত্যু হয়।

ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, জয়পুর এলাকার আব্দুল হালিম নলকূপের পানি নিষ্কাশনের জন্য ১৫ ফিট গভীরতার একটি কূপ তৈরি করেন। সেই অরক্ষিত কূপে তার ছেলে জিম (৮) সহ আরোও দুইশিশু খেলার সময় পড়ে যায়। সেখান থেকে তাদের উদ্ধারের জন্য এগিয়ে আসে প্রতিবেশী যুবক মিলন।

কূপ থেকে মই বেয়ে শিশু জিমকে উপরে তোলার সময় মই ভেঙে মিলন নিজেও কূপের মধ্যে পড়ে যান। পরে এলাকার লোকজন উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলেও ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই তাদের মৃত্যু হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে কূপ থেকে জিম ও মিলনের লাশ উদ্ধার করে।

এলাকাবাসী জানায়, পাড়ার ছেলেরা ছোটাছুটি করে খেলার সময় গ্রামের আমজাদ হোসেনের বাড়ির পাশে পানি নিষ্কাশনের জন্য খুঁড়ে রাখা একটি কূপে তিনটি শিশু পড়ে যায়। এলাকার যুবক মিজানুর রহমান দুটি শিশুকে উদ্ধার করে জিম নামে ৮ বছর বয়সী আপর শিশুকে তোলার সময় মই ভেঙে পড়ে যায়।

এ অবস্থায় স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে পীরগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা গিয়ে শিশুসহ ওই যুবককে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্র নিয়ে যায়। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন