• আজ রবিবার, ১৭ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ১ আগস্ট, ২০২১ ৷

অস্ত্রসহ ৫ রোহিঙ্গা গ্রেফতার : ৪ জনকে জরিমানা

Cox's Bazar news
❏ বুধবার, জুলাই ৭, ২০২১ চট্টগ্রাম

শাহীন মাহমুদ রাসেল, কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজারের টেকনাফ চাকমারকুল রোহিঙ্গা শিবিরে (ক্যাম্প-২১) অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ ৫ রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করেছে ক্যাম্পে দায়িত্বরত ১৬ এপিবিএন ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

বুধবার (৭ জুলাই) বিকেলে চাকমারকুল ক্যাম্পের ব্লক-বি/৬ এর রোহিঙ্গা রশিদ উল্লাহর ঘর নং-৬৩৯ এ  অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। অপরদিকে, উনচিপ্রাং ক্যাম্পে কঠোর লকডাউন অমান্য করে দোকান খোলা রাখার অপরাধে ৪ রোহিঙ্গাকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হয়েছে। ১৬ এপিবিএন অধিনায়ক (এসপি) তারিকুল ইসলাম তারিক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতার রোহিঙ্গারা হলেন, চাকমারকুল ক্যাম্পের ব্লক-বি/৬ এর ঘর নং-২৩১’র বাসিন্দা মো. সেলিমের ছেলে মো. জুবায়ের (১৯), ব্লক-বি/১ এর ঘর নং-৩৫’র বাসিন্দা আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে মো. নুর আলম (২০), ঘর নং-১৪ এর বাসিন্দা ইসলামের ছেলে আমির হোসেন (৩০), ব্লক-এ/৬ এর ঘর নং-৮৩’র বাসিন্দা জামাল উদ্দিনের ছেলে মো. ইয়াকুব (২৭), ব্লক-এ/৭ এর ঘর নং-১৬৩’র বাসিন্দা আবু তাহেরের ছেলে মো. রিদুয়ান (১৮)।  তাদের দেখানো মতে ঘর হতে একটি ওয়ান শুটার ও ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

এসপি তারিক জানান, গোপন সংবাদে খবর আসে চাকমারকুল ক্যাম্পের ব্লক-বি/৬ এর রোহিঙ্গা রশিদ উল্লাহর বাড়িতে ৫-৬ জন দুষ্কৃতকারী অস্ত্রসহ অবস্থান করছে। খবর পেয়েই এপিবিএন ও সেনাবাহিনী যৌথ অভিযান চালায়। পুলিশ ও সেনাবাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে রোহিঙ্গা রশিদ উল্যাহ কৌশলে পালানোর উদ্দেশ্যে দৌড় দিলে তার কোমর হতে একটি দেশীয় তৈরী এলজি পড়ে যায়। সাথে সাথে পুলিশ অস্ত্র ও ১ রাউন্ড গুলি জব্দ করে। এসময় ঘরে থাকা অপর ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলার পর টেকনাফ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

অপরদিকে, বুধবার দুপুরে টেকনাফের উনচিপ্রাং (ক্যাম্প-২২) ক্যাম্পে কঠোর লকডাউন অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় ৪ রোহিঙ্গাকে অর্থদন্ড করা হয়েছে। উনচিপ্রাং এপিবিএন অফিসার ও ফোর্সের সহায়তায় ক্যাম্প সিআইসি মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে এ জরিমানা করেন।

দন্ডপ্রাপ্ত রোহিঙ্গারা হলো, উনচিপ্রাং ক্যাম্পের ব্লক-এ/১ এর ঘর নং-৯৩’র বাসিন্দা মো. সাকের (৪০), ঘর নম্বর-২৮০ এর বাসিন্দা মোঃ হোসেন (২৭), ৭৮ নম্বর ঘরের আইয়ুব (১৯) ও ৬৬১ নম্বর ঘরের বাসিন্দা রিয়াজ (৩৩)। তাদের বিরুদ্ধে সংক্রমণ রোগ প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল আইন ২০১৮ এর ২৪(১) ধারা মোতাবেক প্রত্যেক রোহিঙ্গাকে ৫০০ টাকা করে অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। ১৬ এপিবিএন অধিনায়ক (এসপি) তারিকুল ইসলাম তারিক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন