🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শনিবার, ৯ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ২৪ জুলাই, ২০২১ ৷

গৃহবধূ ও সৎ বোনদের মারধর করে বসতঘর দখল চেষ্টার অভিযোগ


❏ শুক্রবার, জুলাই ৯, ২০২১ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, স্টাফ রিপোর্টারঃ

নোয়াখালী সুবর্ণচরে সৎ ভাইদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ একটি পরিবার। তিন বোন, ভাবী ও সৎ মাকে ঘর থেকে জোর পূর্বক বের করে বসতঘর জবর দখলের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগি মমতাজ বেগম চরজব্বার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। মামলার পর অভিযুক্তরা হুমকি ধমকি প্রদান করছেন বলেও জানান নির্যাতিতরা।

ঘটনাটি ঘটে ৬ জুলাই মঙ্গলবার বেলা ১১ টায়। সুবর্ণচর উপজেলার ৩নং চরক্লার্ক ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের মধ্য কেরামতপুর গ্রামের মৃত মোস্তফা মিয়ার বাড়ীতে।

গতকাল ৮ জুলাই সরজমিনে গেলে ভুক্তভোগি মমতাজ বেগম অভিযোগ করে বলেন, “আমার বাবা মোস্তফা মিয়া মারা যাওয়ার আগে আমাদের থাকার জন্য ঘর ছিলোনা, তখন আমার বাবার অনুরোধে আমার বড় ভাই প্রবাসী নুরনবী আমাদের থাকার জন্য ঘর নির্মান করে দেন। দীর্ঘ বছর ধরে আমরা সেই ঘরে বসবাস করে আসছি।

আমার সৎ ৩ ভাই জসিম অলি উদ্দিন ও নিজাম উদ্দিন তারা সবাই ১০/১২ বছর ধরে মাইজদী শহরে থাকে । মৃত্যুকালে তারা কেউ আমার বাবার খোঁজ খবর নেয়নি। মৃত্যুর কয়েক বছর পূর্বে আমার বাবা অসুস্থ্য হলে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় তারা কৌশলে দলীল বানিয়ে আমার বাবার কাছ থেকে টিপসই নিয়ে কিছু জায়গাজমি হাতিয়ে নেয়। আমার বাবার সকল দলীলে তার সাক্ষর আছে কিন্তু তারা যেটা দেখায় সেটাতে টিপসই আমার বাবা মরার আগে সব আমাদেরকে বলে যায়। ১১ মাস আগে আমার বাবা মারা গেলে তারা সবাই মাইজদী থেকে আমার বাবাকে মাটি দিতে আসে।

তখন আমরা মনে করেছিলাম কয়েকদিন থেকে তারা চলে যাবে পরে যখন তারা আমাদের ঘর ছেড়ে চলে যাবার কথা বলে আমার স্থানীয় চেয়ারম্যান আব্লু বাসারকে বিষয়টি অবহিত করি তখন তিনি মানবিক দৃস্টিতে তাদেরকে ৩ মাস থাকার জন্য বলে। তাদেরকে জায়গা দেয়ার পর এখন তারাই আমাদেরকে ঘর থেকে বের করে সকল জায়গাজমি আত্মসাৎ করার পায়তারা করছে।

ভুক্তভোগি প্রবাসী নুর নবীর স্ত্রী বলেন, “মঙ্গলবার ১১ টার সময় নিজাম, জসিম, অলি উদ্দিন তারা হঠাৎ করে আমাদের সবাইকে ঘর থেকে বের হয়ে যেতে গালমন্ধ করে আমি প্রতিবাদ করলে তারা আমাকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি মেরে রক্তাক্ত করে এবং আমি বের না হলে আমার দুধের শিশুকে গলা টিপে ধরে আমি বের না হলে আমার শিশুকে হত্যা করবে বলে আমাকে হুমকি দেয় পরে প্রাণভয়ে আমি বাচ্চাকে নিয়ে বাহিরে দাঁড়িয়ে থাকি।

মামলার বাদী মমতাজ বেগম আরো বলেন, ঘরে মাত্র ৩ রুম আমরা ৩ বোন এবং মা থাকি আমার সৎ ভাইয়েরা যখন তখন আমার ভাবির রুমে ডুকে পড়ে, আমার রুমে ডুকে পড়ে যা আমাদের কে বিভ্রান্তকর পরিস্থিতিতে পেলে তারা এসব করে আমাদের এই বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করার চেষ্টা করছে, আমার সৎ ভাই অলি এবং নিজামের জন্য আলাদা বাড়ী আছে তারা সেখানে বাড়ি না করে আমাদের উচ্ছেদ করার পায়তারায় লিপ্ত।

অভিযুক্ত অলি উদ্দিন অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, “আমরা দীর্ঘদিন মাইজদী ছিলাম যেহেতু বাবার ঘর আমাদেরও থাকার ঘর আছে, পাশে আমার বাড়ী আছে ঘর করতে গেলে তারা বাঁধা দেয়।

অভিযুক্ত নিজাম বলেন, “নুরনবীর বৌকে কেউ মারধর করেনি। নুরনবী আমার সৎ ভাই তাদের চক্রান্তে আমরা দীর্ঘদিন বাহিরে ছিলাম, জায়গা জমির বিষয়ে কোর্টে মামলা চলামান সে রায় আমাদের পক্ষে আসার কারনে তারা এসব নাটক সাজাচ্ছে। কোর্টে মামলা চলমান কোর্ট যা রায় দেয় সেটাই আমরা মেনে নিবো।

চরজব্বার থানার এসআই নুরুল ইসলাম বলেন, তাদের দুই পক্ষে জায়গাজমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে, ঘরে থাকাকে কেন্দ্র করে তাদের ঝামেলা সৃস্টি হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন