🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শনিবার, ৯ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ২৪ জুলাই, ২০২১ ৷

অবসরে মাহমুদউল্লাহ, গার্ড অব অনার দিলেন সতীর্থরা

sports 53
❏ রবিবার, জুলাই ১১, ২০২১ খেলা

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- দুই দিন ধরে বিষয়টি আলোচনায়। এখনো আনুষ্ঠানিক কোনো বার্তা পাওয়া যায়নি। তবে একটা বিষয় নিশ্চিত, হারারেতে আজই ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট খেলতে নেমেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। পঞ্চম দিনের খেলার শুরুতে একটা চিত্র সব পরিস্কার করে দিয়েছে।

ফিল্ডিং করার জন্য বাংলাদেশ দল মাঠে নেমেই দুই লাইনে দাঁড়িয়ে যায়। তার মাঝখান দিয়ে হেঁটে মাঠে প্রবেশ করেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। সতীর্থদের গার্ড অব ওনারই বলে দেয় আজই সাদা পোশাকে শেষ দিন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের এই সাইলেন্ট কিলারের।

বলা চলে অনেকটা অভিমানী বিদায় এটা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। টেস্ট দলে জায়গা পেয়েছিলেন প্রায় ১৬ মাস পর। পাকিস্তান সফরের সময়ই কোচ রাসেল ডমিঙ্গো তাকে মন দিতে বলেছিলেন সাদা বলে, ওয়ানডে ক্রিকেটে।

তারপর অনেক দিন খেলা হয়নি টেস্ট। জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে একমাত্র টেস্টে হুট করে দলে জায়গা পান তিনি। আর সেই সুযোগটা ভালোমতোই নিলেন রিয়াদ। দল যখন বিপর্যয়ে তখন তিনি দেখালেন ব্যাটিং কারিশমা।

অপরাজিত থাকলেন ১৫০ রানে। দল পেল বড় ইনিংস। ক্যারিয়ারের ৫০তম টেস্টে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। সেই স্মরণীয় ইনিংস খেলার পরই কানাঘুষা শুরু।

জানা গেছে, হারারে টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা শেষ হওয়ার পর ড্রেসিংরুমে মাহমুদউল্লাহ সতীর্থদের নিজের অবসরের কথা জানান। তবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এখনও আসেনি।

হারারের টেস্টের পঞ্চম দিন সকালে সতীর্থরা তাকে গার্ড অব অনার দিয়েছে। ড্রেমিংরুম থেকে মাঠে প্রবেশের পথে তামিম, সাকিব, মুমিনুল, লিটনরা দুই পাশে দাঁড়িয়ে তাকে সম্মান জানান। মাহমুদউল্লাহ হাসিমুখে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সেই সময়ে ধারাভাষ্যে ছিলেন শামীম আশরাফ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আজ সকালে এই ভদ্রলোক…মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বাংলাদেশ স্কোয়াডের সিনিয়র ক্রিকেটার প্রথম ইনিংসে ১৫০ রান করেছিলেন। তবে তিনি প্রত্যেককে জানিয়েছে, টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিচ্ছেন। এজন্য সতীর্থরা তাকে গার্ড অব অনার দিয়েছে। এই টেস্টের পর বাংলাদেশ দীর্ঘদিন টেস্ট ম্যাচ খেলবে না। তার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে সতীর্থরা গার্ড অব অনার দিয়েছে।’

জানতে চাইলে বিসিবির পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেন, ‘আমরাও টিভিতে দেখেছি মাহমুদউল্লাহকে গার্ড অব অনার দিয়েছে। কিন্তু বিসিবি এসবের কিছুই জানে না। আমরা জিম্বাবুয়েতে খোঁজ নেব। বিসিবি প্রেসিডেন্ট আছেন, ক্রিকেট অপারেশন্স আছে। তাদের সঙ্গে কথা বলবো কিভাবে কী হলো।’

এদিকে টেস্ট চলকালীন অবসরের সিদ্ধান্ত জানানো এবং গার্ড অব অনারের মতো প্রক্রিয়া চলায় ক্ষুব্ধ বিসিবির এক পরিচালক। তিনি বলেন, ‘ধারাবাহিক সাফল্য পাচ্ছে তাদের এসব মানায়। টেস্টে আমাদের বলার মতো অর্জন নেই। দল যখন একটু ভালো করছে তখন এসব সিদ্ধান্ত তাও খেলা চলাকালীন…মোটেও উচিত হয়নি। দেখেন এক সকালেই তিনটা ক্যাচ মিস। কোনো প্রভাব নেই বলতে পারবেন?’

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন