ঢাকা ফেরত ৩৭মণ ওজনের কালো মানিক নিয়ে বিপাকে ত্রিশালের সুমন

Trishal Pic-1
❏ সোমবার, জুলাই ২৬, ২০২১ ময়মনসিংহ

মামুনুর রশিদ,ত্রিশাল(ময়মনসিংহ)প্রতিনিধি: কুরবানীর ঈদ উপলক্ষে ১৫০০ কেজি ওজনের কালো মানিক নিয়ে গিয়েছিল ঢাকার উত্তরা গরুর হাটে। কালো মানিকের মালিক জাকির হোসেন সুমনকে নিরাশ হয়ে কালো মানিককে ফিরিয়ে আনতে হলো সেই ত্রিশালেই। এখন কালো মানিকে নিয়ে বিপাকে সুমন।

গরুর মালিক জাকির হোসেন সুমন জানান, অনেক শখ করে ৪ বছর যাবৎ কালো মানিক গরুটিকে আমি দেশীয় খাবার খাইয়ে বড়ো করেছি। গরুর মালিকের দাবি জেলার মধ্যে কালো মানিক সবচেয়ে বড় গরু। ক্ষতিকর ও মোটাতাজা করনের কোনো ওষুধ প্রয়োগ ছাড়াই স্বাভাবিক খাবার খাইয়ে একে বড় করা হয়েছে। কালো মানিকের ওজন ১৫০০ কেজি। এবারের ঈদে কালো মানিককে ঢাকার উত্তরার হাটে তোলা হয়েছিল দাম ৩০ লাখ টাকা চাওয়া হলেও মাত্র ১২ লাখ টাকা পর্যন্ত দাম উঠেছিল। কিন্তু ময়মনসিংহের ত্রিশালে গত এক বছর আগে ১৩ লাখ টাকা পর্যন্ত দাম উঠেছিল। কিন্তু আরো একবছর অনেক আদর যত্ন লালন পালন করে বড় করলাম  এখন আগের চেয়ে দাম কম বলছে। তার ফলে বিক্রি না করেই ঈদের দিন সকালে বাড়িতে ফেরত নিয়ে আসি।

তিনি আরো বলেন, করোনার কারনে অনলাইন পশুর হাটে দামি গরুর চাহিদা বেশি এবং সরাসরি হাটে কম মুল্যের গরু বিক্রি বেশি থাকাই উত্তরার বাজারেও কালো মানিককে বিক্রি করতে পারি নাই। বড় গরুর চাইতে ছোট গরুর চাহিদা এহাটে বেশী। এ কালো মানিক নিয়ে আমি এখন কি করবো ।তার পিছনে আমার দৈনিক দুই হাজার টাকা খরচ হয়। কালো মানিককে নিয়ে পড়েছি বিপাকে।

ফ্রিজিয়ান জাতের এ ষাঁড়টি গত চার বছর ধরে লালন পালন করে আসছেন উপজেলার ধানীখোলা  ইউনিয়নের খামারী জাকির হোসেন সুমন। কালো মানিক ময়মনসিংহ জেলায় সবচেয়ে বাহারী তালিকার বড় গরু হিসেবে স্থান করে নিয়েছে। গরু কালো মানিকের নাম সবার মুখে মুখে। এ বছরও বিক্রি হলো না কালো মানিক। কালো মানিকের খাবার ,ডাক্তার খরচ, দেখা শোনার জন্য একজন লোক দরকার এই টাকা গরুর মালিক কোথা থেকে জুগার করবে। যে টাকা গরুর পিছনে খরচ হয়েছে সামনে আরো কত টাকা খরচ হয় তা নিয়ে কালো মানিকের মালিক পড়েছেন বিপাকে।

আরও পড়ুন :
Jamalpur new বাড়ি ভিটার জমির জন্য মরলেন দুই ভাই

❏ বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১

Mymensing news ঘুষ লেনদেন, এএসআই প্রত্যাহার

❏ মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন