• আজ মঙ্গলবার, ৬ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

ব্যবসায়ীরা ‘নিঃস্ব’, হোটেল-রেস্তোরাঁ চালুর দাবি

hotel 52
❏ সোমবার, আগস্ট ২, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ৫ আগস্টের পর অর্ধেক আসন খালি রেখে স্বাভাবিক নিয়মে রেস্তোরাঁ খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন মালিকরা। চলমান লকডাউনে ৮০ থেকে ৯০ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে জানিয়ে এমন দাবি করেছে বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) নসরুল হামিদ মিলনায়তনে সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে মালিকদের দাবি তুলে ধরা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির মহাসচিব ইমরান হাসান করোনা মহামারিতে দোকান বন্ধ রাখায় আর্থিক ক্ষতিসহ বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, করোনাভাইরাসের আঘাতে রেস্তোরাঁ সেক্টরটি সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গতবছরের ৮ মার্চ থেকে করোনাভাইরাসজনিত কারণে সরকারি পরিপত্র অনুযায়ী রেস্তোরাঁ ব্যবসা কখনও ৫০ শতাংশ আসনে বসিয়ে আবার কখনও অনলাইন/টেকএওয়ের মাধ্যমে ব্যবসা সীমিত রেখেছি। আমাদের রেস্তোরাঁ ব্যবসা শুধুমাত্র অনলাইন ডেলিভারি/টেকএওয়ের ওপর নির্ভরশীল হয়ে চালানো সম্ভব নয়। রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ীরা বর্তমানে নানা সমস্যায় জর্জরিত।

এতে জানানো হয়, সারাদেশে ৬০ হাজার রেস্তোরাঁয় ৩০ লাখ কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং প্রায় দুই কোটি মানুষ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত রয়েছে, যারা এখন মানবেতর জীবনযাপন করছে। সারাদেশে শতকরা ৮০ ভাগ রেস্তোরাঁ বন্ধ রয়েছে। প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে হাহাকারের টেলিফোন আসছে। রেস্তোরাঁ বন্ধ থাকায় সংশ্লিষ্ট মালিকপক্ষ ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা যে হৃদয়বিদারক কষ্ট করছে, তা ভাষায় বোঝানো সম্ভব নয়।

রেস্তোরাঁ মালিকরা জানান, বর্তমানে টেকএওয়ে, পার্সেল ও অনলাইন ডেলিভারি করছে এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা হোটেল-রেস্তোরাঁ অনুপাতে মাত্র ২ থেকে ৩ শতাংশ। আমরা মনে করি, বর্তমানে শুধু অনলাইন ডেলিভারির সুযোগ দিয়ে রেস্তোরাঁ বন্ধ রাখার ঘোষণাটি দুরভিসন্ধিমূলক ও দেশীয় ব্যবসায়ীদের কোণঠাসা করার পথও বটে। এখানে দেশি-বিদেশি স্বার্থান্বেষী মহলের হাত রয়েছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন