• আজ মঙ্গলবার, ৬ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

ডা.জাহাঙ্গীর কবীরের পক্ষে ফেসবুকে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া


❏ বুধবার, আগস্ট ৪, ২০২১ স্পট লাইট

ফয়সাল শামীম, সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: আলোচিত ডা. জাহাঙ্গীর কবীর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিটো ডায়েট সম্পর্কিত বিভিন্ন নির্দেশনা প্রদান করে থাকেন। তার এ নির্দেশনা ও চিকিৎসা ‍ভুল এবং অবৈজ্ঞানিক আখ্যায়িত করে তা সরিয়ে নিতে সাত দিনের আল্টিমেটাম দেয় ডাক্তারদের সংগঠন ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেফটি, রাইটস অ্যান্ড রেসপন্সিবিলিজ (এফডিএসআর)।

এরপরই মঙ্গলবার ( ৩ আগস্ট) ডা. জাহাঙ্গীর করীব অনলাইন থেকে ভিডিও সরিয়ে নিয়ে দুঃখপ্রকাশ করে ক্ষমা চান।

তবে এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। এফডিএসআর এর এমন কাণ্ডে হয়েছেন ডা. জাহাঙ্গীর কবীরের ভক্তরা।

আয়ান ইসরাম আবির নামে একজন লিখেছন, আমার আব্বু-আম্মুর প্রেসার, গ্যাস্ট্রিক, বুক জ্বালাপোড়া, হার্টের সমস্যায় দীর্ঘ বছর ধরে ভুগছিলো! হঠাৎ করে অস্থির হয়ে যেতো, শরীর খারাপ করতো, মাসে ৫ থেকে ৮ বার বাসায় ডাক্তার আনতে হতো, ক্লিনিকে চেকআপ করাতে হতো, এতো কিছুর পরেও তাদের শরীর কোনোভাবে ভালো রাখলেও ওভারঅল শারীরিক শান্তিটা পেতনা! ডা. জাঙ্গাঙ্গীর কবীরের লাইফ স্টাইল ফলো করে আলহামদুলিল্লাহ জানুয়ারি মাস থেকে আজ পর্যন্ত বাসায় ডাক্তা আনতে হয়নি, ক্লিনিকে নিয়ে যেতে হয়নি, ওষুধ খরচ আগের তুলনায় ৭০ শতাংশ কমে গেছে! তারা শারীরিক ভাবে কমফোর্ট ফিল করে! আপনার অপরাধটা ঠীক এখানেই? আপনার জন্য ডাক্তার নামে কসাইখানার ইনকাম কমে যাচ্ছে! আজ পর্যন্ত কাউকে বলতে শুনিনি আপনার ভুল চিকিৎসার জন্য কেউ মারা গিয়েছে বা কেউ অভিযোগ করেছে। অথচ কসাইখানা গুলোতে কত রোগী ভুল চিকিৎসার জন্য মারা যাচ্ছে। কিন্তু তাদের নিয়ে ডাক্তারদের কোনো মাথাব্যাথা দেখলাম না! আপনাকে নিয়ে তাদের এত্ত মাথাব্যাথার কারণ একটাই আপনার মত সৎ ডাক্তারের জন্য কসাইখানার ধান্দা কমে যাচ্ছে!

মোহাম্মদ সাখাওয়াত নামে একজন লিখেছেন, দিন দিন যেভাবে মানুষ জাহাঙ্গীর স্যারের ভিডিও দেখে উপকৃত হচ্ছে, তাতে মনে হয় একদিন এই সব কসাই ডাক্তাররা বিজনেস হারাবে, তাই তাদের চুলকানি শুরু হয়ে গেছে।

সিফাত উল্লাহ নামে একজন লিখেছেন, অন্ধের দেশে আয়না বিক্রি করতে নেই। আমরা বিবেকহীন, জ্ঞানপাপী, স্বার্থান্বেষী, হিংসুক, সমালোচক। অন্যের ভালো আমরা মোটেও সহ্য করতে পারি না। কেউ উপরে উঠতে চাইলে আমরা তাকে দাবিয়ে রাখি। পারলে পায়ের নিচে পিষ্ট করার চেষ্টা করি! আল্লাহ আমাদেরকে হেফাজত করুক আমিন।

মনিরুল মমিন নামে একজন লিখেছেন, হে আল্লাহ তুমি আমাদের লাইফস্টাইল মডিফায়ার ডাঃ জাহাঙ্গীর কবির স্যার কে কুচক্রীদের চক্রান্ত হতে রক্ষা কর আমিন।

ফারজানা আক্তার নামে একজন ‍লিখেছেন, সময় এসেছে এতদিন যার থেকে আমরা নিয়েছি এখন তাকেও তার প্রাপ্য টা দেয়ার।

মনোয়ারা মুন্নি নামে একজন ‍লিখেছেন, প্রিয় জাহাঙ্গীর কবির স্যার এর উপর শুকুনের চোখ পড়েছে তাই আসুন আমরা যারা জে কে লাইফ স্টাইলএর সৈনিক আছি আমরা সবাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসব ভন্ড ডাক্তাররে বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায় এবং স্যারের পাশে দাঁড়ায়।

আল আমীন ইবনে আবু রশিদ নামে একজন ‍লিখেছেন,তার অপচিকিৎসাই যথেষ্ট আমাদের জন্য। এত সুচিকিৎসার দরকার নাই…. ডা: জাহাঙ্গীর কবির ভাল একজন ডাক্তার এবং মহৎ একজন মানুষ। কুচক্রীদের থেকে আল্লাহ আপনাকে রহম করুক। সবাই সবার অবস্থান থেকে ভালো চিকিৎসা করুক এটাই কামনা করি।

প্রসঙ্গত, ডা. জাহাঙ্গীর কবীর একজন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ। তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার পাশাপাশি ফেসবুক-ইউটিউবে স্বাস্থ্য বিষয়ক বিভিন্ন পরামর্শ এবং নির্দেশনা দিয়ে থাকেন। যা কিটো ডায়ের নামে পরিচিত। তবে তার দেওয়া কিটো ডায়েট সংক্রান্ত পরামর্শ নিয়ে চিকিৎসা মহলে আলোচনা-সমালোচনা রয়েছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন