🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ১ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

পল্লী চিকিৎসকের চেম্বারে চিকিৎসা নিতে ধর্ষণের শিকার গৃহবধু!

গৃহবধূ
❏ শুক্রবার, আগস্ট ১৩, ২০২১ রংপুর

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের বালুয়া বাজারে শাহারুল ইসলাম নামের এক পল্লী চিকিৎসকের চেম্বারে চিকিৎসা নিতে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক গৃহবধূ। বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) বিকাল ৫টার দিকে কালুয়া বাজারে ডাক্তারের চেম্বারে এ ঘটনায় ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের গন্ধববাড়ী গ্রামের এক গৃহবধূ অসুস্থ হয়ে পড়লে বালুয়া বাজারের পল্লী চিকিৎসক শাহারুলের চেম্বারে আসে। এ সময় কেউ না থাকার সুযোগে শাহারুল চেম্বারের দরজা বন্ধ করে জোরপূর্বক ওই নারীকে ধর্ষণ করে।

পরে ওই নারী চেম্বার থেকে বের হয়ে বিষয়টি স্থানীয়দের জানালে উপস্থিত লোকজন ওই চিকিৎসকের চেম্বার ঘিরে রেখে বিচার দাবী করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল এসে শাহারুলকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) তাজুল ইসলাম জানান, রাতেই ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ বাদী হয়ে পল্লী চিকিৎসক শাহারুলের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

এরকম আরও সংবাদ

হাতকড়াসহ পালানো সেই যুবদল নেতা এবার ‘ধর্ষণ’ করতে গিয়ে গ্রেফতার!

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর দশমিনায় পুলিশের ওপর হামলা মামলায় দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর এবার ধর্ষণের অভিযোগে মো. নজরুল ইসলাম (৩০) নামে এক যুববল নেতা গ্রেফতার হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার  (১২ আগস্ট) গভীর রাতে উপজেলার বাঁশবাড়িয়া গ্রাম থেকে স্থানীয়রা তাকে আটক করে পুলিশ সোপর্দ করেছেন।
নজরুল ওই ইউনিয়ন যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক।

পুলিশ জানায়, উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের বাঁশবাড়িয়া গ্রামের সেকান্দার মোল্লার ছেলে মো. নজরুল ইসলামকে গত ২ জুন মাদকসহ গ্রেফতার করা হয়। ওই সময় সে পুলিশের ওপর হামলা করে হাতকড়াসহ পালিয়ে যায়। এর পর থেকে দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিল সে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে বাঁশবাড়িয়া গ্রামের এক তরুণী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে ঘর থেকে বের হলে নজরুল তাকে একটি ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে স্থানীয়রা তাকে আটক করে থানায় খবর দিলে পুলিশ নজরুলকে গ্রেফতার করে।

নজরুলের বিরুদ্ধে ককটেল বিস্ফোরণসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

দশমিনা থানার ওসি মো. জসিম জানান, গ্রেফতার নজরুলের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি মামলা প্রক্রিয়াধীন। ভুক্তভোগী তরুণীকে মেডিকেল টেস্টের জন্য পটুয়াখালী পাঠানো হবে।