🕓 সংবাদ শিরোনাম

স্ত্রীর তালাকে স্বামীর ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যাসংক্রমণ বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আবার বন্ধ: শিক্ষামন্ত্রীশরীয়তপু‌রে বে‌পরোয়া কিশোর গ্যাং, হাত বাড়া‌লেই মিল‌ছে মাদক!বিএনপির কোনো পরিকল্পনা সার্থক হবে না: শাজাহান খানকর্ণফুলীতে ধান ক্ষেত থেকে রিক্সা চালকের লাশ উদ্ধারঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে চালু হবে ২০২৬ সালেমালয়েশিয়ায় গার্মেন্টস কারখানার বাংলাদেশী মালিকসহ ৪৫ জন রিমান্ডে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন কার্যক্রম উদ্বোধনসংকুচিত হচ্ছে বনাঞ্চল: টেকনাফে ফের বন্য হাতির অস্বাভাবিক মৃত্যুদেশে বিনিয়োগ করুন: প্রবাসীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী

  • আজ শনিবার, ১০ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

জামালপুরে দশ বছর ধরে অকেজো ৩ অ্যাম্বুলেন্স 

Jamalpur news
❏ সোমবার, আগস্ট ১৬, ২০২১ ময়মনসিংহ

রকিব হাসান নয়ন, জামালপুর প্রতিনিধি: ৫০ শয্যার মেলান্দহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের তিন টি অ্যাম্বুলেন্স ১০ বছরের ধরে অকেজো হয়ে পড়ে আছে।

বর্তমানে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একটি অ্যাম্বুলেন্স সচল থাকলেও এক সপ্তাহ পর পর করতে হয় মেরামত। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অ্যাম্বুলেন্স সংকটের কারণে ভোগান্তি পোহাচ্ছেন গরিব রোগীরা। বেশির ভাগ সময় নির্ভর করতে হয় ভাড়া করা অ্যাম্বুলেন্সে।

সরেজমিনে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, তিনটি অ্যাম্বুলেন্স অকেজো অবস্থায় পড়ে আছে। এর মধ্যে দুটি মরচে ধরে মাটির সঙ্গে মিশে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে।‌ অন্যটিও ধুলার আস্তরণে বিবর্ণ হতে চলেছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৫ ও ২০১০ সালে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগী বহনের জন্য অ্যাম্বুলেন্স দেওয়া হয়। এবং ২০১৫ সালে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে আরো একটি অ্যাম্বুলেন্স দেওয়া হয়। ১৯৯৫ ও ২০১০ সালের দুই অ্যাম্বুলেন্স প্রায় ১০ বছর ধরে অকেজো হয়ে পড়ে আছে। ২০১৫ সালের প্রধানমন্ত্রীর উপহারের অ্যাম্বুলেন্স টি ৩ বছর ধরে বিকল হয়েছে। বর্তমানে ২০১৭ সালে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া অ্যাম্বুলেন্সটি সচল রয়েছে। তবেও প্রতি সপ্তাহে করতে হয় মেরামত।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হওয়া এক রোগীর স্বজন আব্দুল্লাহ নামে একজন বলেন, রোগীদের একটু খারাপ অবস্থা দেখলে পাঠানো হয় জামালপুর সদর হাসপাতালে, তখন জরুরি ভাবে প্রয়োজন হয় অ্যাম্বুলেন্স। হাসপাতালে একটি সরকারি অ্যাম্বুলেন্স থাকলেও তা ঠিক সময়ে পাওয়া যায় না।

আবুল কালাম আর একজন বলেন,মেলান্দহ থেকে জামালপুর সদর হাসপাতালে বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে রোগী নিয়ে গেলে ভাড়া দিতে হয় এক হাজার টাকা। তাই গরীব মানুষেরা সিএনজি বা অটো রিকশা দিয়ে হাসপাতালে নিয়ে রোগী যায়। অ্যাম্বুলেন্সের অভাবে আশঙ্কাজনক রোগীদের জেলা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে নিতে দেরি হওয়ায় অনেক রোগী পথেই মারা যান ।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অ্যাম্বুলেন্স চালক মোঃ রহিম বলেন, দুই টি অ্যাম্বুলেন্স একদাম নষ্ট হয়ে গেছে। আর একটি অ্যাম্বুলেন্স ঠিক করলে কোনরকম চালানো যাবে। বর্তমানে যে অ্যাম্বুলেন্সটি চালাচ্ছি এটাও প্রতিদিন ঠিক করতে হয় কমবেশি।দূরে কোথাও যাওয়া যায় না, যেকোনো সময় নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এই অ্যাম্বুলেন্সটি যেকোনো সময় বিকল হতে পারে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মকর্তা ডা. ফজলুল হক বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বিকল হয়ে পড়ে আছে অ্যাম্বুলেন্স‌ । তিনটি গাড়ির মধ্যে দুটি অকেজো হয়ে পড়ে আছে। প্রধানমন্ত্রীর উপহারের গাড়িটি মেরামত করলে চালানোর উপযোগী হবে। বর্তমানে একটি অ্যাম্বুলেন্সের রয়েছে এটি যেকোন সময় বিকল হয়ে যেতে পারে। নতুন একটি অ্যাম্বুলেন্স ও প্রধানমন্ত্রীর উপহারের অ্যাম্বুলেন্স মেরামত করার জন্য চিঠি তৈরি করে মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন :
news n234 জামালপুরে ৯ ব্যক্তি জীবিত থেকেও ‘মৃত’

❏ বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১

news n34 ময়মনসিংহের নান্দাইলে ধানক্ষেতে রক্তাক্ত মরদেহ

❏ বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১

atok n342 নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বাবা গ্রেপ্তার!

❏ বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১

ত্রিশালের নতুন ইউএনও আক্তারুজ্জামান

❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন