• আজ শনিবার, ৩ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

মায়ের আত্মত্যাগে আইসিইউ পাওয়া সেই ছেলে এখন সুস্থ


❏ বুধবার, আগস্ট ১৮, ২০২১ আলোচিত

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে মা নিজের আইসিইউ ছেড়ে দিয়েছিলেন ছেলের জন্য। মা কানন প্রভা পালের আত্মত্যাগের কারণে ছেলে শিমুল পাল এখন করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন। তার এখন লাগছে না কোনো আইসিইউ শয্যা। হাসপাতালের সাধারণ শয্যায় তিনি এখন চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এর আগে তিনি তিন সপ্তাহ আইসিইউতে ছিলেন। গত সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউ ওয়ার্ড থেকে শিমুল পালকে হাসপাতালের সাধারণ আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠানো হয়।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শিমুল পাল এখন শঙ্কামুক্ত। তাই তাকে আইসিইউ থেকে নামিয়ে সাধারণ শয্যায় রাখা হয়েছে। আরও কয়েক দিন পর্যবেক্ষণের পর বাসায় ফিরে যেতে পারবেন শিমুল পাল।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট (মেডিসিন) ও কোভিড ব্যবস্থাপনার ফোকাল পার্সন ডা. আবদুর রব মাসুম বলেন, মা কানন প্রভা পালের অনুরোধে তাকে আমরা আইসিইউ থেকে নামিয়ে ছেলে শিমুল পালকে আইসিইউ দিয়েছিলাম। এই কাজটা আমরা করতে চাইনি। তবু মায়ের অনুরোধে করেছিলাম। যখন শিমুল পালকে আইসিইউতে চিকিৎসা দিচ্ছিলাম তখন কিন্তু মা আর দুনিয়াতে নেই।

এটা আমাদের জন্য হৃদয়বিদারক ঘটনা ছিল। ছেলেকে যে আমরা বাঁচাতে পারব, সেই আশাও ছিল না। কারণ তখন ছেলের অবস্থা ছিল কঠিন। তিনি বলেন, তিন সপ্তাহ পর শিমুল পালকে সুস্থ করে তুলতে পেরে আমরা সবাই আনন্দিত। হাসপাতালের সব চিকিৎসক, নার্স, ওয়ার্ডবয়রা দিনরাত অনেক পরিশ্রম করেছেন। তাকে দু-তিনদিন পর্যবেক্ষণে রেখে বাড়ি যাওয়ার ছাড়পত্র দেওয়া হবে। বর্তমানে শিমুল পালের অক্সিজেন স্যাচুরেশন কেমন জানতে চাইলে ডা. আবদুর রব বলেন, বর্তমানে শিমুল পালের অক্সিজেন স্যাচুরেশন ৯৬ থেকে ১০০-এর মধ্যে আছে। তিন থেকে চার লিটার অক্সিজেন লাগছে। শারীরিক পরিস্থিতিও অনেক ভালো আছে।

গত ২৭ জুলাই রাতে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউ ওয়ার্ডে ভর্তি হওয়া শিমুল পালের মা কানন প্রভা পাল তার নিজ আইসিইউ শয্যা ছেড়ে দেন ছেলের জন্য। মূলত শিমুল পালের শারীরিক অবস্থারও অবনতি হওয়ায় তারও আইসিইউ সাপোর্ট প্রয়োজন পড়ে। কিন্তু কোথাও আইসিইউ বেড পাওয়া যাচ্ছিল না। বিষয়টি আইসিইউতে থাকা মা কানন প্রভা পাল জানতে পেরে চিকিৎসককে জানান, তাকে বাদ দিয়ে ছেলেকে যেন আইসিইউ সাপোর্ট দেওয়া হয়। কিন্তু মুমূর্ষু মা তার ছেলের জন্য নিজের আইসিইউ শয্যা ছেড়ে দেওয়ার কিছুক্ষণ পর শ্বাসকষ্টে মারা যান।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন