• আজ শনিবার, ৩ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

অবৈধ গ্যাস সংযোগে নিরাপত্তা প্রহরীর বাণিজ্য!

Naokhali news
❏ রবিবার, আগস্ট ২২, ২০২১ চট্টগ্রাম

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন,  স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: নোয়াখালী পৌরসভায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে মোটা অঙ্কের অর্থ বাণিজ্য করছেন কুমিল্লা বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডেরে নিরাপত্তা প্রহরী নুর মোহাম্মদ (মন্ত্রী)।

অভিযুক্ত নুর মোহাম্মদ নোয়াখালী পৌরসভার মধ্যম করিমপুর গ্রামের সাদেক আলী পাটোয়ারী বাড়ির বাসিন্দা।

ভুক্তভোগী নোয়াখালী পৌরসভার মধ্যম করিমপুর গ্রামের সাদেক আলী পাটোয়ারী বাড়ির রফিকুল ইসলামের ছেলে আক্তার হোসেন ও একই বাড়ির নজির আহম্মদের ছেলে আবুল ফজল বলেন, দীর্ঘ চার বছর যাবৎ একই বাড়ির নুর মোহাম্মদ ওরপে মন্ত্রী বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডে চাকুরির সুবাদে প্রতিটি ৭০ হাজার টাকার বিনিময়ে তার গ্যাস রাইজার থেকে আমাদেরকে গ্যাস সংযোগ প্রদান করেন। ওই সংযোগের বিনিময়ে প্রতি মাসে আমাদের কাছ থেকে ৯৭৫ টাকা হারে গ্যাস বিল আদায় করেন নুর মোহাম্মদ মন্ত্রী। নুর মোহাম্মদের ঘরের গ্যাস সংযোগটিও অবৈধ বলে জানান তারা।

ভুক্তভোগীরা আরো বলেন, সংযোগ প্রদানের পর নুর মোহাম্মদ মন্ত্রীর কাছে আমরা গ্যাস সংযোগের বৈধ কাগজপত্র চাইলে সে জানান, আপনাদের কাগজপত্র অফিসে আছে। আপনাদের কাগজপত্র কেউ চাইবেনা।

নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান, নুর মোহাম্মদ মন্ত্রী বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডে চাকুরী করার কারণে অফিসের প্রভাব দেখিয়ে এভাবে বহু অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে মোটা অঙ্কের অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন।

এলাহী মোড় সংলগ্ন মসজিদের আশপাশের একাধিক বাড়িতে বেশ কয়েকটি অবৈধ গ্যাস সংযোগ রয়েছে। এসব অবৈধ গ্যাস সংযোগের বিরুদ্ধে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড নোয়াখালীর কোন অভিযান চোখে পড়ে না বলেও জানান এলাকাবাসী।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত নুর মোহাম্মদ জানান, আমার এবং আমার প্রতিবেশী আক্তার হোসেন এবং আবুল ফজলের গ্যাস সংযোগের অনুমোদন আছে। কাগজপত্র দেখতে চাইলে নোয়াখালী গ্যাস অফিসের টেকনিশিয়ান মাজহারের কাছে যান।

তবে বর্তমানে আশুগঞ্জ বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডে কর্মরত মাজহারুল ইসলাম জানান, তিনি এবিষয়ে কিছুই জানেন না। নুর মোহাম্মদ তার নাম ভাঙ্গিয়ে প্রায় এসব অপকর্ম করেন।

বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড নোয়াখালীর ডিজিএম প্রকৌশলী মো. সোলাইমান রোববার দুপুরে জানান, এধরনের কোন অভিযোগ কেউ জানায়নি। আজই আমরা নুর মোহাম্মদের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করবো।

এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডের কর্মকর্তা থেকে শুরু করে কর্মচারীদের এসব অবৈধ গ্যাস সংযোগ প্রদানের কারণে বহু মানুষ বৈধ পথে চেষ্টা করেও গ্যাস সংযোগ পাচ্ছেন না। এসব কর্মচারী-কর্মকর্তাদের লাগাম এখনি টেনে না ধরলে গ্যাস নিয়ে হাহাকার দেখা দিবে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন