সমাজসেবা কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ করলো ভাতা বঞ্চিত বিক্ষুব্ধ জনতা

Shatkhira news
❏ সোমবার, আগস্ট ২৩, ২০২১ খুলনা

জাহিদ হোসাইন, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শেখ শাহিদুর রহমানকে দুই ঘন্টা ধরে অবরুদ্ধ করে রাখে ভাতা বঞ্চিত বিক্ষুব্ধ জনতা। পরে পুলিশ যেয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে এবং পুলিশের উপস্থিতিতে সমাজসেবা কর্মকর্তা চলে আসেন।

রোববার(২২ আগস্ট) সকাল ১১ টার দিকে সাতক্ষীরা সদরের কুশখালী ইউনিয়ন পরিষদে ওই ঘটনা ঘটে।

মোহাম্মদ, ইনতাজ, আসকার পাগলসহ শতশত প্রতিবন্ধি, বয়স্ক, বিধবাভাতা বঞ্চিতরা বলেন, মোবাইলের মাধ্যমে টাকা প্রদানের সিদ্ধান্তের পর থেকে আমরা কোন টাকা পায়নি। আমাদের বারবার বলা হয়েছে আপনারা টাকা পাবেন। কিন্তু আমরা এখনও টাকা পায়নি। আমাদের বারবার ইউনিয়েন পরিষদে এবং সমাজেসেবা অফিসে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কিন্তু টাকা দেওয়ার কোন ব্যবস্থা করিনি। আমরা অসহায় মানুষ। আমাদের এভাবে হয়রানি না করে আমাদের টাকা দেওয়া হবেনা এটা বলে দিলেইতো হয়। এই সমাজেসেবা কর্মকর্তার যোগ সাজসে অন্য কেউ তুলে নিয়েছে বলে আমরা জেনেছি। এজন্য আমাদের টাকা দেওয়ার নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত আমরা তাকে পরিষদে আটকে রেখেছিলাম।

কুশখালী ইউপি সচিব কবিরুল ইসলাম বলেন, সমাজসেবা কর্মকর্তা আমার রুমে এসে আধাঘন্টা বসেছিলেন। বাইরে অনেক লোকজন থাকায় তিনি ভয়ে পরিষদ থেকে বের হতে পারছিলেন না। এজন্য পরে পুলিশ এসে তাকে পরিষদ থেকে নিয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, একটি ফরম পূরণ করে আগামী ২৬ আগস্ট এর মধ্যে সমাজসেবা অফিসে জমা দেওয়ার জন্য সমাজসেবা কর্মকর্তা বলে গেছেন। আশা করছি ইউপি মেম্বর ও গ্রাম পুলিশদের সহায়তায় সকল ভাতা বঞ্চিতরা ২৬ আগস্ট এর মধ্যে ফরম পূরণ করে সমাজসেবা অফিসে জমা দেবেন।

এ ব্যাপারে জানার জন্য সমাজসেবা কর্মকর্তার মোবাইলে কল করলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

সাতক্ষীরা থানার এসআই কবির হোসেন বলেন, ওসি স্যার আমাকে কুশখালী ইউনিয়ন পরিষদে যেতে বললে আমি সেখানে যায়। এবং পরিস্থিতি শান্ত করি। পরে আমাদের উপস্থিতিতে সমাজসেবা কর্মকর্তা চলে আসেন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন