🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ১ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

টাঙ্গাইলে কাউন্সিলর মোর্শেদের বিরুদ্ধে মেয়ে হত্যার বিচার চেয়ে বাবার সংবাদ সম্মেলন

news52
❏ বুধবার, আগস্ট ২৫, ২০২১ Uncategorized

তোফাজ্জল, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি- বাবা তার মেয়ে পিংকি হত্যা ও লাশ গুমের অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছে টাঙ্গাইল পৌরসভার কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা আতিকুর রহমান মোর্শেদের বিরুদ্ধে। বুধবার (২৫ আগস্ট) সকালে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু অডিটোরিয়ামে সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত দেয়া বক্তব্যে পিংকির বাবা সৈয়দ শরিফ উদ্দিন বলেন, কাউন্সিলর মোর্শেদের বাসার সামনে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বাসা ভাড়া থাকতাম। এরপর সন্ত্রাসী মোশের্দের নজরে আমার মেয়ে পরে। ২০১২ সালের জুন মাসে তার মেয়ে পিংকিকে মোর্শেদের লোকজন অপহরণ করে। পরে ১৭ নং ওয়ার্ডের কাজী মোস্তফার মাধ্যমে মোর্শেদ ও সৈয়দ আমেনা পিংকির বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর জোর করে কাজী মোস্তফার বালাম বই থেকে মোর্শেদ তাদের কাবিননামা ছিঁড়ে ফেলে দেয়।

এরপর মোর্শেদ পিংকিকে স্ত্রীর মর্যাদা দিয়ে ঘর সংসার করতে থাকে। মোর্শেদের দুই স্ত্রী থাকায় পরিবারে মাঝে মাঝে ঝগড়া হয়। তাদের সংসারে এক কন্যা সন্তান মায়শা জন্মগ্রহন করে, যার বয়স ছয় বছর। পিংকির সংসারে এক মুহুর্তের জন্য শান্তি দেয়নি সন্ত্রাসী মোর্শেদ ও তার প্রথম স্ত্রী। তাকে প্রচুর মারধর করত। অভিভাবক হয়েও মোর্শেদের তান্ডবের কাছে অসহায় দর্শক হয়ে থাকতে বাধ্য হয়েছি। ২০১৭ সালের ২৬ জানুয়ারি রাতে মুন্সী তারেক পটনের বাসায় দাওয়াতের কথা বলে পিংকিকে নিয়ে যায় মোর্শেদ। সেখানে নিয়েই অভিযুক্ত আসামীরা পিংকিকে হত্যা করে লাশ গুম করে। আমার মেয়েকে যেভাবে হত্যা ও গুম করার হুমকি দিয়েছিল, সেভাবেই হত্যা ও গুম করে দিলো।

সৈয়দ শরিফ উদ্দিন বলেন, আমি বাদি হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ ও আর অজ্ঞাত ৩/৪ জনকে আসামী করে টাঙ্গাইলের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেছি।

মামলার আসামীরা হচ্ছে, টাঙ্গাইল শহরের বিশ্বাস বেতকা এলাকার মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে আতিকুর রহমান মোর্শেদ (৫২), মৃত আ. মোমেনের ছেলে মুন্সী তারেক পটন (৪৯), মৃত লুৎফর রহমানের ছেলে পারভেজ খান রনি (৩৬), সোহেল ওরফে বাবু (২৭), দুলাল সূত্রধরের ছেলে অন্তর সূত্রধর (২৭), আতিকুর রহমান মোর্শেদের প্রথম স্ত্রী সুমা (৪৫), মুন্সী তারেক পটনের স্ত্রী লিনা (৪০), শামীম আল মামুনের ছেলে রাফসান (২৮), মৃত আজিজ মিয়ার ছেলে আয়নাল মিয়া (৪৫)।

প্রসঙ্গত, টাঙ্গাইল পৌরসভার ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আতিকুর রহমান মোর্শেদকে গত ১৯ আগস্ট গোয়েন্দা পুলিশ ও সদর থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করে। পরে তার বিশ্বাস বেতকা এলাকার বাড়িতে তল্লাশী চালিয়ে দু’টি বিদেশি পিস্তল, ছয় রাউন্ড গুলি ও দুটি ম্যাগজিন উদ্ধার করে পুলিশ।

আতিকুর রহমান মোর্শেদের বিরুদ্ধে দুই যুবলীগ নেতা হত্যা, ছাত্রদল নেতা রেজা হত্যা, ব্যবসায়ী তুহিন হত্যা মামলাসহ চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের এক ডজন মামলা হয়েছে। মোর্শেদ টাঙ্গাইল শহর ছাত্রলীগের নেতা ছিলেন। পরে জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে দলীয় পদ না থাকলেও শহর আওয়ামী লীগের দলীয় বিভিন্ন কর্মকান্ডে অংশ নিতেন। তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ছাত্রদল নেতা রেজা হত্যা মামলা রাজনৈতিক বিবেচনায় প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।