🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ১৪ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌকাডুবি : আরও এক শিশুর লাশ উদ্ধার, নিহত বেড়ে ২২

lash 5234
❏ শনিবার, আগস্ট ২৮, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় যাত্রীবাহী ইঞ্জিনচালিত নৌকার সঙ্গে বালুবোঝাই ট্রলারের সংঘর্ষের ঘটনায় আরও এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ২২ মরদেহ উদ্ধার করা হলো। এ ছাড়া নিখোঁজ রয়েছে আরও অনেকে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার রাত ১২টা পর্যন্ত ২১ মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছিল। রাতে উদ্ধারকাজ শেষে এ তথ্য জানিয়েছিলেন পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আনিসুর রহমান। পরে আজ শনিবার সকাল ৮টার দিকে আবারও উদ্ধার অভিযান শুরু হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার পর উদ্ধার অভিযানের সময়ই ৩ বছর বয়সী এক শিশুর লাশ ভেসে ওঠে। এরপর লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত নাশরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের পৈরতলা এলাকার হারিছ মিয়ার মেয়ে।

বিজয়নগর উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের ওই বিলের পাড়ে শনিবার সকালে গিয়ে দেখা গেছে, নিখোঁজ স্বজনদের অপেক্ষায় রাত থেকে সেখানে অবস্থান নিয়ে আছেন স্বজনরা। উদ্ধারকর্মীরাও কাজ করে যাচ্ছেন।

উদ্ধারকাজ নির্বিঘ্নে চালিয়ে নিতে সাময়িকভাবে বিজয়নগর-ব্রাহ্মণবাড়িয়া নৌপথে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে প্রশাসন।

বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) রাবেয়া আফসার শনিবার সকালে জানান, পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তীতে নৌযান চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার (২৭ আগস্ট) বিকেল সোয়া ৫টায় বালুবাহী ট্রলারের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষের পর অপর একটি যাত্রীবোঝাই নৌকা ডুবে যায়। ডুবে যাওয়া নৌকাটি ওই দিন বিকেল সাড়ে ৪টায় বিজয়নগর উপজেলার চম্পকনগর নৌকাঘাট থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের আনন্দবাজার ঘাটের উদ্দেশে যাত্রা করে। এ ঘটনায় রাত ১২টা পর্যন্ত ২১ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার পর জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে ১৩ জনকে। আহত ১৬ জনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে মুমূর্ষু পাঁচজন।

নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে রাত ১২টা পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল থেকে ১৭ জনের দেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মরদেহের সঙ্গে দাফনের জন্য স্বজনদের দেয়া হয়ে ২০ হাজার টাকার অর্থ সহায়তা।

বিজয়নগর উপজেলার চরইসলামপুর থেকে শুক্রবার সন্ধ্যায় স্থানীয় লোকজন ট্রলারের চালকসহ তিনজনকে আটক করে পুলিশে হস্তান্তর করে। তারা হলেন- জেলার সরাইল উপজেলার ষোলাবাড়ি এলাকার ট্রলারচালক জামির মিয়া এবং তার দুই সহযোগী মো. খোকন ও মো. রাসেল।

আরও পড়ুন :

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন