🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ১৪ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

ফরিদপুরে পদ্মায় ট্রলারডুবি: ৩ দিনেও সন্ধান মেলেনি সেই দুই স্কুল শিক্ষকের

Faridpur news
❏ শনিবার, আগস্ট ২৮, ২০২১ ঢাকা

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরে পদ্মায় ট্রলার ডুবির ঘটনার তিন দিন পেরিয়ে গেলেও নিখোঁজ দুই শিক্ষকের সন্ধান মেলেনি। এতে হতাশ নিখোঁজ দুই শিক্ষকের পরিবার।

পদ্মায় ভ্রমণে গিয়ে ফরিদপুর সদরের তাইজউদ্দীন মুন্সীর ডাঙ্গী এলাকায় ট্রলারডুবিতে নিখোঁজ হয় ওই দুই শিক্ষক।

বুধবার (২৫ আগস্ট) সন্ধ্যা ৬ টায় দিকে নিখোঁজ হলেও আজ শনিবার (২৮ আগস্ট) দুপুর ১ টা পর্যন্ত তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র কর্মকর্তা সুভাষ বাড়ৈ।

নিখোঁজ ওই দুই শিক্ষক হলেন ফরিদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের সহকারী শিক্ষক আলমগীর হোসেন (৪১) ও সারদা সুন্দরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের সহকারি শিক্ষক আজমল হোসেন শেখ (৪৪)। এদের মধ্যে আজমল হোসেনের বাড়ি সদর উপজেলার খলিলপুরে। তবে তিনি জেলা শহরের গোয়ালচামটে ভাড়া থাকেন। আর আলমগীর হোসেনের বাড়ি খলিল মন্ডলের হাট এলাকায়। তিনি শহরের ঝিলটুলি পুরাতন পাসপোর্ট অফিস এলাকায় থাকেন।

এ ট্রলার দুর্ঘটনায় আহত ফরিদপুরের চর মাধবদিয়া ইউনাইটেড উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিষয়ক সহকারী শিক্ষক প্রদীপ কুমার বিশ্বাস (৪২) ও সারদা সুন্দরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবসায়ী শিক্ষা শাখার শিক্ষক বলাই কুমার দাস (৪১)কে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ছাড়া আরও দুই শিক্ষক প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

ফরিদপুর ২নং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. রাকিব হোসেন জানান, দূর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ স্থানীয়দের সহায়তায় উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। ১৪ জন শিক্ষক এবং মাঝিসহ ট্রলার ডুবে যায়। ১২ জনকে উদ্ধার করতে পারলেও দুই জন শিক্ষককে এখনও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র কর্মকর্তা সুভাষ বাড়ৈ জানান, ঘটনাস্থল থেকে দুই কিলোমিটার পর্যন্ত তারা ট্রলার নিয়ে খোঁজ চালাচ্ছেন। তিনি বলেন, নদীতে প্রচুর স্রোত রয়েছে। এজন্য তাদের বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। ডুবুরি দল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে উদ্ধার কাজ শুরু করেছে। তারাও উদ্ধারে তৎপর চালাচ্ছে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন রঞ্জন সরকার বলেন, নিখোঁজ দুই শিক্ষককে উদ্ধারে নৌ-পুলিশ, জেলা পুলিশ, ডুবুরি ও দমকল বাহিনীর কয়েকটি দল কাজ করছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ডুবুরি দল নতুন করে উদ্ধার কাজ শুরু করেছে। তবুও এখন পর্যন্ত সন্ধান মেলেনি ওই দুই শিক্ষকের।

প্রসঙ্গত, ফরিদপুর শহর থেকে বুধবার (২৫ আগস্ট) বিকেল ৩ টায় ট্রলার ভাড়া করে পদ্মায় ভ্রমণে যান বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৪ জন শিক্ষক। ভ্রমণ শেষে বাড়ি ফেরার পথে তীব্র স্রোতের মুখে ৩ নম্বর পন্টুনের সঙ্গে সংঘর্ষে শিক্ষকদের বহন করা ট্রলারটি ডুবে যায়। এ সময় ১২ জন শিক্ষক সাঁতারে পাড়ে উঠতে পারলেও আজমল ও আলমগীর নামের দুই শিক্ষক নিখোঁজ রয়েছেন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন