🕓 সংবাদ শিরোনাম

ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পরই পেরুর প্রেসিডেন্ট আটক * মকবুলের মরদেহ দেখতে হাসপাতালে মির্জা ফখরুল, স্ত্রী সন্তানকে আর্থিক সহায়তা * রাস্তা বন্ধ করে সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না, আমরাও করব না: ওবায়দুল কাদের * নয়াপল্টন থেকে মির্জা ফখরুলকে ফিরিয়ে দিলো পুলিশ * বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে আরও ১,২৫০ কোটি টাকা ঋণ নিলো ২ ইসলামী ব্যাংক * দুই মামলায় হাজিরা দিলেন মির্জা ফখরুল-আব্বাস * থমথমে নয়াপল্টন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় অবরুদ্ধ * ফুলবাড়ীতে অপহরণের ২১ দিনেও উদ্ধার হয়নি নরসুন্দর বাবলু ! * বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের দেশে কোন মানুষ ঠিকানাহীন থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী * ভারতকে টানা ২ সিরিজ হারাল বাংলাদেশ *

  • আজ বৃহস্পতিবার, ২৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

বসুন্ধরা এমডিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে ‘ধর্ষণ ও হত্যার’ মামলা

md
❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ৬, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- রাজধানীর গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে মোসারাত জাহান মুনিয়ার মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় এবার ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ এনে মামলা করেছেন তার বড় বোন নুশরাত জাহান তানিয়া।

মামলায় বসুন্ধরার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীর, তার বাবা, মা ও স্ত্রীসহ আটজনকে আসামি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় এর আগে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা করেছিলেন নুশরাত। সে মামলায় সায়েম সোবহান আনভীরকে আসামি করা হলেও চূড়ান্ত প্রতিবেদনে তাকে অব্যাহতি দেয় পুলিশ।

এরপর সোমবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৮ এর বিচারক বেগম মাফরুজা পারভীনের আদালতে ধর্ষণ-হত্যার মামলাটি করেন নুশরাত জাহান।

আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ শেষে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দেয়।

বসুন্ধরার এমডি আনভীরের পাশাপাশি তার বাবা বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান, মা আফরোজা সোবহান, আনভীরের স্ত্রী সাবরিনা এবং শারমিন, সাইফা রহমান মিম, মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা এবং ইব্রাহিম আহমেদ রিপনকে এ মামলায় আসামি করা হয়েছে।

মামলায় কী অভিযোগ করা হয়েছে জানতে চাইলে বাদীর আইনজীবী মাসুদ সালাউদ্দিন বলেন, “সায়েম সোবহান আনভীর ফুসলিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মুনিয়ার সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। পরে তাকে বিয়ে না করে নৃশংসভাবে হত্যা করে। আর এতে তার পরিবারের সদস্যসহ অন্য আসামিরা সাহায্য করে।”

তিনি বলেন, “আমরা আটজনকে আসামি করেছি। আদালত মামলাটি পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।”

রাজধানীর গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে গত ২৬ এপ্রিল রাতে কলেজছাত্রী মোসারাত জাহানের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীরের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলা করেন মোসারাতের বড় বোন নুসরাত জাহান।

সেই অভিযোগের বিষয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে কখনো কথা বলেননি বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি। মুনিয়ার মৃত্যুর সঙ্গে তার কোনো ‘সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি’ জানিয়ে গত ১৯ জুলাই আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করে পুলিশ।

পুলিশের ওই প্রতিবেদনে অনাস্থা (নারাজি) জানিয়ে মুনিয়ার বোন, মামলার বাদী নুসরাত জাহান তানিয়া অন্য কেনো সংস্থার মাধ্যমে মামলাটি তদন্তের আবেদন করেছিলেন। তা খারিজ করে ঢাকার মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরী গত ১৮ অগাস্ট চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণ করে সায়েম সোবহান আনভীরকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেন।