🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শনিবার, ৩ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

লামায় পরিত্যক্ত পুকুর থেকে চাকমা কিশোরীর লাশ উদ্ধার

lash
❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২১ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

এস.কে খগেশপ্রতি চন্দ্র খোকন, লামা প্রতিনিধি- পরিত্যক্ত একটি পুকুর থেকে ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরীর লাশ উদ্ধার করেছে লামা থানা পুলিশ। লামা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড বড় নুনারবিল মার্মা পাড়ায় বুধবার ভোর ৫টায় ৪০ মিনিটে এই কিশোরীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়দের সূত্রে জানাযায়, সংবাদ পেয়ে পুলিশ ও লামা ফায়ার সার্ভিস দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ৩০ মিনিটের অধিক সময় ধরে খোঁজাখুঁজি করে লাশ উদ্ধার করে। কিশোরী প্রিয়ন্তী চাকমা বড় নুনারবিল মার্মা পাড়ার নিক্সন চাকমা ও জ্যোতিকা চাকমার পালক মেয়ে।

প্রিয়ন্তী চাকমা লামা আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী। নিহত কিশোরী প্রিয়ন্তী চাকমার বাবা নিক্সন চাকমা লামায় একটি এনজিওতে চাকরী করেন। তারা বড় নুনারবিল মার্মা পাড়ার মংহ্লা প্রু মার্মার ভাড়া বাড়িতে থাকে। নিক্সন চাকমার নিজ বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা সদরে।

নিহতের মা জ্যোতিকা চাকমা বলেন, তারা রাতে খেয়ে যার যার রুমে শুয়ে পড়েছে। ভোরে মানুষের শোরগোল শুনে উঠে দেখে ঘরের দরজা খোলা এবং মেয়ের লাশ ঘরের পাশে একটি পরিত্যক্ত পুকুর থেকে উদ্ধার করছে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস। মেয়েটি আগেও কয়েকবার রাতে ঘুমের ঘোরে ঘর থেকে বের হয়েছিল।

পার্শ্ববর্তী এক নারী বলেন, রাত ৩টা ৪৫ মিনিটে তার ঘরের সাথে লাগোয়া পরিত্যক্ত পুকুরের অপর পাড়ে কি যেন একটা পড়ার শব্দ পায় তিনি। ঝুপ করে পড়ার শব্দে তাদের ঘুম ভেঙ্গে যায়। তারা শোয়া থেকে তাড়াতাড়ি উঠে মোবাইলের লাইট জ্বালিয়ে বের হয়ে দেখেন কি যেন একটা পানিতে ডুবে যাচ্ছে। তিনি ও তাঁর স্বামী অনেক ডাকাডাকি করলেও আশপাশের কেউ বের হয়নি।

পরে একা হওয়ায় ওই নারী ও তার স্বামী ভয়ে পানিতে না নেমে ঘরে চলে যান। পরে তার স্বামী ফায়ার সার্ভিসে কল দিয়ে ব্যর্থ হলে পরে ৯৯৯ ফোন করে বিষয়টি জানায়। সকালে ওই স্থান থেকে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা কিশোরীর লাশ উদ্ধার করে লামা হাসপাতালে নিয়ে যায়।

নিক্সন চাকমা ও জ্যোতিকা চাকমা নিঃসন্তান হওয়ায় তারা মেয়েটিকে ছোট থেকে দত্তক নিয়েছেন। পালক মেয়ে হলেও তারা মেয়েটিকে আপনের চেয়েও বেশি যত্ন নিত।

লামা পৌরসভার ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর জাহানারা বেগম বলেন, আমার বাড়ির পাশের ঘটনা। ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। মেয়েটি অনেক মেধাবী ছিল।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, লাশের সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন