🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ১৪ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

কক্সবাজারে ৪ সন্তানের জননীকে কুপিয়ে হত্যা, আটক ৪


❏ শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২১ চট্টগ্রাম

শাহীন মাহমুদ রাসেল, কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজারের রামুতে পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের দায়ের কোপে ছালেহা বেগম (৩২) নামের গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে আরোও একজন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে চার জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত সাড়ে ৯ টার দিকে মিঠাছড়ি ইউনিয়নের চেইন্দার পশ্চিম খোন্দকার পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত ছালেহা ওই এলাকার হাফেজ মাওলানা আলী জোহারের স্ত্রী। তিনি চার ছেলে সন্তানের জননী এবং ৭ মাসের একটি দুগ্ধজাত সন্তানও রয়েছে। নিহতের লাশ জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।

ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন- একই এলাকার আব্দুর রহমান, তার ছোট ভাই আব্দুল হাকিম, আব্দুল মালেক ও শ্যালক শফিউল আলম।

আটককৃতরা বর্তমানে রামু থানা হেফাজতে রয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল হোসাইন।

তিনি জানান- নিহতের পরিবারের সাথে হামলাকারীদের দীর্ঘদিনের পারিবারিক দ্বন্দ্ব-বিরোধ ছিল। কিছুদিন আগে তাদের এক মেয়ে কোথায় চলে যায়। এই ঘটনার সাথে নিহত ছালেহা বেগমের সম্পৃক্ততা আছে সন্দেহে ঘরে ঢুকে তাকে মারধর করে। এক পর্যায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে তার মৃত্যু হয়। আটক ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

নিহতের ছেলে মোহাম্মদ ইসমাইল বলেন, আব্দুর রহমানের ছোট এক মেয়ে জরুরী প্রয়োজনের কথা বলে আমার মাকে ডেকে নিয়ে যায়। বাড়িতে যাওয়ামাত্র ঘরের ভেতরে ঢুকিয়ে দরজা বন্ধ করে ব্যাপক মারধর করে। খবর পেয়ে দরজা ভেঙ্গে মাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি। পরে সদলবলে আবার আমার বাড়িতে এসে হামলা চালায়।

ইসমাইল বলেন, আব্দুর রহমানসহ কয়েকজন মিলে আমার মা ও আমাকে ব্যাপক মারধর করে। তাদের বেপরোয়া ছুরি ও দায়ের কোপে আমি নিজেই আহত হই। পরে মুমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে মাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন