স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসরে বাজারে এলো ওয়ালটনের নতুন ট্যাব

Walpad 10S
❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২১ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক: নিজস্ব কারখানায় তৈরি সাশ্রয়ী মূল্যের অত্যাধুনিক প্রযুক্তিপণ্য বাজারে এনে একের পর এক চমক দিচ্ছে ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি নতুন মডেলের আরেকটি ট্যাবলেট পিসি বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন।

‘ওয়ালপ্যাড ১০এস’ মডেলের ওই ট্যাবে রয়েছে ১০.৫ ইঞ্চির অ্যামোলেড ডিসপ্লে, বিশ্বখ্যাত কোয়ালকম কোম্পানির স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর এবং বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে রয়েছে বিল্ট-ইন কি-প্যাড। আকর্ষণীয় ডিজাইনের সিলভার রঙের ট্যাবটি এখন দেশের সর্বত্র পাওয়া যাচ্ছে। এর মূল্য ধরা হয়েছে মাত্র ২৬,৯৯০ টাকা। রয়েছে এক বছরের ওয়ারেন্টি।

ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডস্ট্রিজ লিমিটেডের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর লিয়াকত আলী বলেন, গ্রাহকদের কাছে সাশ্রয়ী মূল্যে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির পণ্য তুলে দিতে আমরা প্রতিনিয়ত কাজ করছি। আমাদের পর্যবেক্ষণে দেশের প্রযুক্তিপ্রেমী গ্রাহকদের কাছে উন্নতমানের ট্যাবলেট কম্পিউটারের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এজন্যই ডিজিটাল ডিভাইসের জগতে ওয়ালটনের নতুন সংযোজন ওয়ালপ্যাড ১০ এস। ওয়ালটনের নতুন মডেলের এই ট্যাবটি ব্যবহারকারীদের আধুনিক জীবনযাত্রায় নতুনমাত্রা যোগ করবে। আমাদের বিশ্বাস এর দ্বারা সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবেন শিক্ষার্থী এবং চাকুরিজীবিরা।

ওয়ালটন সূত্রে জানা গেছে, অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন ‘ওয়ালপ্যাড ১০এস’ ট্যাবে আছে ১০.৫ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস অ্যামোলেড ডিসপ্লে। অনসেল টাচ পর্দার রেজ্যুলেশন ২৫৬০ বাই ১৬০০ পিক্সেল। ৩৫০ নিটস ডিসপ্লে ব্রাইটনেস থাকায় প্রয়োজনীয় কাজে ব্যবহারকারী পাবেন অনন্য অভিজ্ঞতা। প্রধান আকর্ষণ হিসেবে ট্যাবটিতে রয়েছে বিল্ট-ইন কিপ্যাড যার মাধ্যমে টাইপিং-এ পাওয়া যাবে দারুণ সুবিধা। এর ফলে ট্যাবটিকে সহজেই টেবিল অথবা যেকোনো সমান সার্ফেসে ল্যাপটপের মতো রেখেও ব্যবহার করা যাবে। ইন্টারনেট ব্রাউজিং, অনলাইন ক্লাস, বই পড়া, গেম খেলা, মুভি দেখাসহ অফিশিয়াল কাজ ও বিনোদনের জন্য আদর্শ এই ট্যাব।

অ্যান্ড্রয়েড ৯ অপারেটিং সিস্টেম চালিত এই ট্যাবের দ্রুতগতি নিশ্চিত করতে রয়েছে ২.২ এবং ১.৮ গিগাহার্টস গতির কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬৬০ অক্টাকোর প্রসেসর। সঙ্গে থাকছে ৪ গিগাবাইট র‌্যাম এবং অ্যাড্রেনো ৫১২ গ্রাফিক্স। এর ইন্টারন্যাল স্টোরেজ ৬৪ গিগাবাইটের। এক্সটারনাল কার্ডের মাধ্যমে আরও ৫১২ গিগাবাইট পর্যন্ত বর্ধিত মেমোরি ব্যবহার করা যাবে। অধিক স্টোরেজ ক্ষমতা থাকায় অনেক বেশি ডকুমেন্ট, ভিডিও, ছবি, মিউজিক ও নানা ধরনের অ্যাপ সংরক্ষণ করা সম্ভব হবে। ফলে ট্যাবটি হবে আরও বেশি উপভোগ্য।

ওয়ালপ্যাডটির পেছনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের অটোফোকাস ক্যামেরা। সেলফি ও ভিডিও কলের জন্য সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ট্যাবের সামনে-পেছনে ভিডিও রেকর্ডিং সুবিধায় রয়েছে ১০৮০পি হাই ডেফিনেশন ভিডিও মোড। ফলে ছবি বা ভিডিও হবে স্পষ্ট ও নিখুঁত। ১৮ ওয়াট টাইপ-সি ফার্স্ট চার্জিং সুবিধার এই ট্যাবে আছে ৭৭০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার লি-পলিমার ব্যাটারি। ফলে দীর্ঘক্ষণ কাজ করা বা ভিডিও দেখা যাবে অনায়াসেই। ফোরজি ইন্টারনেট ব্যবহার ও কল করার জন্য রয়েছে ডুয়াল হাইব্রিড সিম স্লট। মাল্টিমিডিয়া হিসেবে আছে ফুল এইচডি মানের ভিডিও দেখার সুযোগ ও রেকর্ডিংসহ এফএম রেডিও।

ট্যাবটিতে কানেক্টিভিটি হিসেবে রয়েছে ২.৪ এবং ৫ গিগাহার্টজ ডুয়াল ব্যান্ড ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ৫, ওটিজি, জিপিএস নেভিগেশন, জি সেন্সর, লাইট সেন্সর ইত্যাদি। ওয়ালপ্যাডের পুরুত্ব মাত্র ৭.২ মিলিমিটার এবং ১৭৫.৪ মিলিমিটার চওড়া ট্যাবটি ব্যাটারিসহ ওজন মাত্র ৪৯১ গ্রাম। ফলে এটি সহজেই বহন করা যাবে।

এছাড়াও বাজারে রয়েছে ওয়ালটনের আরো ২ মডেলের অ্যান্ড্রয়েড ট্যাব এবং ১ মডেলের উইন্ডোজ ট্যাব। পাশাপাশি নানা মডেল ও ফিচারের ডেক্সটপ, ল্যাপটপ, অল-ইন-ওয়ান পিসি, মনিটর, কিবোর্ড, মাউস, পেন ড্রাইভ, ইয়ারফোন, ওয়াই-ফাই রাউটার, ইউপিএস, ইউএসবি হাব, কার্ড রিডার, স্পিকার, এসএসডি, এক্সটারর্নাল এসএসডি, র‌্যাম, পিসিবিএ, মেমোরি কার্ড, পাওয়ার ব্যাংক, প্রজেক্টর, ডিজিটাল রাইটিং প্যাড, ইউএসবি টাইপ সি ক্যাবল ইত্যাদি উৎপাদন ও বাজারজাত করছে ওয়ালটন।

খুব শিগগিরই এক্সেস কন্ট্রোল ডিভাইস, প্রিন্টার, নেটওয়ার্কিং সুইচ, ওয়েবক্যাম ইত্যাদি পণ্যও বাজারে ছাড়বে ওয়ালটনের কম্পিউটার বিভাগ।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন