🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২১ অক্টোবর, ২০২১ ৷

আফগানিস্তানে নারী মন্ত্রণালয় হচ্ছে তালেবানের ‘পাপ ও পুণ্য’ মন্ত্রণালয়


❏ শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- আফগানিস্তানে নারীবিষয়ক মন্ত্রণালয় বন্ধ করে দিতে চাইছে তালেবান। এ মন্ত্রণালয়কে পাপ-পূণ্য মন্ত্রণালয়ে বদল করার চেষ্টা চলছে। একসময় এ মন্ত্রণালয় কট্টর ধর্মীয় মতাদর্শ বাস্তবায়নে কাজ করেছে। বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালেবান সরকারের আমলে এ দপ্তর ছিল।

শুক্রবার সেখানে পাপ ও পুণ্য মন্ত্রণালয়ের নামে নতুন সাইনবোর্ড লাগানো হয়েছে। নারীবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নারীকর্মীরা অভিযোগ করেছেন, ভবনে তাদের প্রবেশ করতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

ভবনের ছবি ও এক প্রত্যক্ষদর্শীর বরাতে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, নারীবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নামের সাইনবোর্ডের বদলে এখন সেখানে দারি ও আরবি ভাষায় লেখা হয়েছে, প্রার্থনা, নির্দেশনা এবং পুণ্যের প্রচার ও পাপ ঠেকানো মন্ত্রণালয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে আফগানিস্তানের বেশ কিছু ভিডিও ছড়িয়েছে। এতে দেখা যায়, নারীরা কর্মস্থলের বাইরে দাঁড়িয়ে রয়েছেন। তাঁরা ভেতরে ঢুকতে চাইছেন কিন্তু তালেবান সদস্যরা তাঁদের ঢুকতে দিচ্ছেন না।

তবে এ ঘটনা একেবারে অপ্রত্যাশিত নয়। কারণ এর আগে যখন তালেবান ক্ষমতায় ছিল, তখন নারীরা বাইরে কাজ করতে পারেননি। যদিও এরপর অবস্থার পরিবর্তন হয়েছিল; তবে নারীরা এখন ভয়ে আছেন। তাঁরা আশঙ্কা করছেন, নারীদের যে অগ্রগতি, তা থমকে যেতে পারে নতুন এই তালেবান সরকারের কারণে।

এক নারী জানান, নারী মন্ত্রণালয়ের নারী কর্মীরা কয়েক সপ্তাহ ধরে কাজে ফেরার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু তাদের বাড়িতে থাকতে বলা হয়েছে। অবশেষে বৃহস্পতিবার ভবনটির গেটে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে।

নারী মন্ত্রণালয়ের কাজ করা আরেক নারী জানান, তিনিই পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী। এখন মন্ত্রণালয়ই নাই, আফগান নারীদের কী হবে?

শুক্রবার এই বিষয়ে তালেবান মুখপাত্র মন্তব্যের অনুরোধে সাড়া দেননি।

এর আগে এক সিনিয়র তালেবান বলেছিলেন, সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে পুরুষদের সঙ্গে নারীদের কাজের অনুমতি দেওয়া হবে না।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন