নারী‌কে প্রকা‌শ্যে নির্যাত‌নের ঘটনায় অধরা আসামীরা, পু‌লি‌শের ভূ‌মিকাও রহস্যজনক!

Shariyatpur news
❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২১ বরিশাল

নয়ন দাস , শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুর পৌরসভার পালং এলাকায় এক নারী‌কে প্রকা‌শ্যে নির্যাত‌নের ঘটনায় এখ‌নো ধরা ছোঁয়ার বা‌হি‌রে এজাহার ভুক্ত আসামীরা।

গত ২০ সে‌প্টেম্বর নির্যাত‌নের ওই ঘটনার এক‌টি ভি‌ডিও সামা‌জিক যোগা‌যোগ মাধ্য‌মে ব্যাপক ভাইরাল হ‌য়ে‌ছে। এ ঘটনায় নির্যাতনকারী‌দের ‌বিরু‌দ্ধে পালং ম‌ডেল থানায় ৩টি মামলা দা‌য়ের ক‌রে‌ছে ভুক্তভুগীরা। য‌দিও মামলার সাঁত দিনেও অ‌ভিযুক্ত‌দের গ্রেফতার কর‌তে পা‌রে‌নি পুলিশ। মামলার বাদীর অ‌ভি‌যোগ, থানা পু‌লি‌শের ভূ‌মিকা রহস্যজনক। কিন্তু পু‌লিশ বল‌ছেন আসামী‌দের গ্রেফতা‌রে তা‌দের অ‌ভিযান অব্যাহত র‌য়ে‌ছে।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ৮ সে‌কে‌ন্ডের ভি‌ডিও ফু‌টে‌জে দেখা যায়, এক নারী‌কে বাঁচা‌নো চেষ্টা কর‌ছে কিছু মানুষ। কিন্তু হটাৎ ক‌রে রড হা‌তে এক যুবক এ‌সে সেই নারী‌কে মাথায় আঘাত ক‌রেন। এরপর এক ব্যা‌ক্তি ওই যুবক‌কে ধ‌রে নি‌য়ে যাওয়ার চেষ্টা কর‌লেও তা‌কে ঠেকা‌নো যা‌চ্ছে না। তারপরও চেষ্টা কর‌ছেন ক‌য়েকজন মানুষ। এছাড়াও ভি‌ডিও‌তে দেখা যা‌চ্ছে প্রকা‌শে নারীর উপর নির্যাতন হ‌লেও কিছু মানুষ ওই দৃশ্য দেখ‌ছেন দর্শক ভূ‌মিকায়।

মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গে‌ছে, জ‌মি সংক্রন্ত বি‌রো‌ধের জে‌রে গত ২০ সে‌প্টেম্বর ‌পৌরসভার পালং স্কুল এলাকায় এক নারী‌কে রড দি‌য়ে পি‌টি‌য়ে প্রকা‌শ্যে মারধর ক‌রে ওই এলাকার কা‌শের মাদবরের ছে‌লে নাজমুল মাদবর (২৩) ও নাঈম মাদবর (২০) গং। মারধ‌রের শিকার ওই নারী প্রা‌ণে বাঁচ‌তে একপর্যা‌য়ে আশ্রয় নেন পা‌শে থাকা এ‌টিএন বাংলা ও এ‌টিএন নিউজের শরীয়তপু‌র প্র‌তি‌নি‌ধি রোকনুজ্জামান পার‌ভেজের দোকা‌নে। এ সময় ওই নারী‌কে বাঁচা‌তে ওই সাংবা‌দিক এ‌গি‌য়ে গে‌লে আভিযুক্তরা ক্ষিপ্ত হ‌য়ে তকেও রড দি‌য়ে পি‌টি‌য়ে আহত ক‌রে ও দোকান ভাংচুর চালায়। প‌রে খবর পে‌য়ে পালং ম‌ডেল থানা পু‌লি‌শ আহত‌দের ঘটনাস্থল থে‌কে উদ্ধার ক‌রে শরীয়তপুর সদর হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি ক‌রা হয়। ওই সময় যুবক‌দের হামলায় নারীসহ পাঁচজন আহত হয়। এ ঘটনায় পালং ম‌ডেল থানায় ২১ সে‌প্টেম্বর ভুক্তভু‌গী সাংবা‌দিক রোকনুজ্জামান পার‌ভেজ ও ক্ষ‌তিগ্রস্থ আজিজুল চৌ‌কিদার বাদী হ‌য়ে দুই‌টি মামলা দ‌য়ের ক‌রেন। য‌দিও রহস্যজনক কার‌ণে প্রথ‌মে ওই নির্যাত‌নের শিকার নারীর মামলা নেয়‌নি পু‌লিশ। পরবর্তী‌তে ২২ সে‌প্টেম্বর জেলা পু‌লিশ সুপা‌রের নি‌র্দে‌শে ওই নারীকে শ্লীলতাহানী অভি‌যো‌গে ভিক‌টি‌মের মামলা রেকর্ড ক‌রা হয়। ত‌বে একই ঘটনায় আভিযুক্ত‌দের বিরু‌দ্ধে একা‌ধিক মামলা হ‌লেও‌ এজাহার ভুক্ত কাউ‌কেই গ্রেফতার কর‌তে পা‌রেনি পু‌লিশ।

এ‌দি‌কে- নারী‌কে বাঁচা‌তে গি‌য়ে সাংবা‌দিক নির্যাত‌নের মামলা আসামী‌দের গ্রেফতা‌রের দাবী‌তে গত ২২ সে‌প্টেম্বর পু‌লিশ সুপা‌রের কার্যাল‌য়ে অবস্থান কর্মসূ‌চি পালন ক‌রে জেলার শতা‌ধিক সংবাদকর্মী। এসময় পালং ম‌ডেল থানা পু‌লি‌শের ভূ‌মিকা নি‌য়েও প্রশ্ন তু‌লে‌ছেন সাংবা‌দিকরা। য‌দিও জেলা পু‌লিশ সুপা‌রের আশ্বা‌সে সে‌দিন কর্মসূ‌চি স্থগিত ক‌রা হয়। পরদিন‌ পু‌লিশ অ‌ভিযান চালি‌য়ে পালং এলাকা থে‌কে অজ্ঞাতনামা আসামী‌দের ম‌ধ্যে দুইজন‌কে জ‌ড়িত স‌ন্দে‌হে গ্রেফতার ক‌রে আদাল‌তের মাধ্যমে কারাগা‌রে পাঠা‌নো হয়। কিন্তু ঘটনার পর থে‌কে অ‌ভিযুক্ত নাজমুল মাদবর ও নাঈম মদবর প‌রিবার’সহ আত্মগোপনে আছেন। তা‌দের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় পাওয়া গে‌লেও ইমু আই‌ডি‌তে তাদের‌কে এক‌টিভ পাওয়া যা‌চ্ছে।

নির্যাত‌নের শিকার গৃহবধু ও মামলার বাদী লি‌পি আক্তার প‌পি ব‌লেন, ‌নারী নির্যাতন ব‌ন্ধে সরকার ক‌ঠোর আইন কর‌লেও স‌ঠিক বাস্তবায়ন না হওয়ায় নারী নির্যাতন কম‌ছে না। আমা‌কে যে ভা‌বে নির্যাতন ক‌রে‌ছে, মাথায় যে ভা‌বে আঘাত ক‌রে‌ছে ওরা আমার বাঁচার কথা ছিল না। আল্লাহ্ দয়ায় এখ‌নো নিরাপত্তাহীনতার মা‌ঝেও বেঁ‌চে আ‌ছি। ত‌বে আসামী‌রা অ‌নেক ক্ষমতাশালী। তাই য‌দি না হতো আলো‌চিত এমন ঘটনা ঘ‌টি‌য়েও ও‌দের কিছু হ‌চ্ছে না। পু‌লি‌শের গুরুত্ব তেমন নাই। তাহ‌লে আমি ন্যায় বিচার কোথায় গে‌লে পা‌বো জা‌নিনা। আমি বিচার চাই, ন্যায় বিচার থে‌কে অা‌মি ব‌ঞ্চিত হ‌চ্ছি।

শরীয়তপুর ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়া জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শহীদুজ্জামান খান বলেন, আমাদের সহকর্মী গুরুতর আহত, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। কিন্তু পুলিশের ভূ‌মিকা রহস্যজনক। পুলিশ আসামী গ্রেফতার করার কোন তৎপরতা দেখাচ্ছেন না। ডি‌জিটাল প্রযু‌ক্তিও তা‌দের কা‌জে আস‌ছে না। পুলিশের এমন আচরন দে‌খে আমাদের মা‌ধ্যে নিরাপত্তা সংকট তৈ‌রি হ‌চ্ছে। কেন এমন হ‌চ্ছে পু‌লি‌শের ভূ‌মিকা এমন হওয়ার কথা ছিল না।

শরীয়তপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি অনল কুমার দে বলেন, সি‌নিয়র সাংবা‌দিক রোকনুজ্জামান পারভেজের ওপর হামলা ও মারধরের ঘটনাটিতে আমরা শঙ্কিত। পুলিশ এখনো কেন আসামীদের গ্রেফতার করছেন না তা রহস্যজনক। পু‌লিশ সুপা‌রের আশ্বা‌সের কোন বাস্তবায়ন দেখ‌ছি না। আবারও কর্মসূ‌চি ঘোষনা করা হ‌বে।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আক্তার হোসেন বলেন, আহত অবস্থায় পারভেজ ভাই‌কে পুলিশই উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে। আমা‌দের অবস্থান থে‌কে আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চা‌লি‌য়ে যা‌চ্ছি। ত‌বে ৭দি‌নের গ্রেফতার কর‌তে না পারার বিষ‌য়ে জান‌তে চাই‌লে ও‌সি আসামীদের দ্রুতই গ্রেফতার করা যা‌বে ব‌লে প্রশ্ন এ‌ড়ি‌য়ে যান ঐই পু‌লিশ প‌রিদর্শক।