• আজ বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২১ অক্টোবর, ২০২১ ৷

ফ্রিল্যান্সিংয়ে সফল সিলেটের রুবি

ruby
❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২১ সিলেট

আবুল হোসেন, সিলেট প্রতিনিধি: তথ্য প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে নিজেকে স্বনির্ভর হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্নে বিভোর একজন তরুণী রুবি বেগম। আর এই স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে ঘরে বসেই অনলাইনে আইটি ও আউটসোর্সিংয়ের উপর বিভিন্ন কোর্স করে এগিয়ে যাচ্ছেন একজন দক্ষ অনলাইন উদ্যোক্তা হওয়ার লক্ষ্যে।

বেগম রাবেয়া খাতুন চৌধুরী নার্সিং কলেজ থেকে বি.এস.সি ইন নার্সিং কোর্স শেষ করা রুবির ছোট বেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি আলাদা একটা টান ছিলো। সেই টান থেকেই স্বপ্নের সূচনা। একটা প্রফেশনাল কোর্স চলাকালীন সম্পূর্ণ ভিন্ন ধারার একটা প্রফেশনে প্রশিক্ষন নেওয়া খুব একটা সহজ ছিলোনা তবে দৃঢ় মনোবল আর অধম্য ইচ্ছা তার এই স্বপ্ন টা কে বাস্তবে রুপ দিতে সক্ষম হয়।

সিলেট নগরীর দক্ষিণ সুরমার আলমপুরের বাসিন্দা ব্যবসায়ী আব্দুস সামাদ ও মৃত আয়জুন বেগম দম্পতির ৬ সন্তানের মধ্যে সবার ছোট বলে পরিবারের সকলের আদরের রুবি। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে করোনাকালে অনলাইনে চাইলেই তিনি আড্ডা বা বিভিন্ন গেইমে সময় কাটাতে পারতেন। কিন্তু তা না করে ঘরবন্দি সময়ে তিনি করোনার লকডাউনে ২০২০ এর জানুয়ারি থেকে শুরু করেন আইটি বিষয়ক বিভিন্ন কোর্স করা। প্রথম প্রথম এসব কাজে পরিবারের তেমন একটা সহযোগিতা না পেলেও বর্তমানে পরিবারের পুরো সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন এই উদ্যোক্তা।

প্রথমে শেখ কামাল আইটি এন্ড ইনকিউবিশন প্রজেক্ট এর গ্রাফিক্স ডিজাইন কোর্স এর ইন্টারভিউ দিয়ে মেধাতালিকায় চান্স পেয়ে গ্রাফিক্স ডিজাইন করা শুরু করেন। তখন বাধা হয়ে দাঁড়ায় তার বিভিন্ন কালার আইডিয়া না থাকা। পরে তিনি কোর্স শেষ করে তিনি ডিজিটাল মার্কেটিং এ মনোযোগ দেন। তার এই যাত্রা শুরু হয়েছিলো অনলাইন এর লার্নিং এন্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট এর হাত ধরে। তার জন্য এই পথটা খুব একটা সহজ ছিলো না কারণ তার যা অভিজ্ঞতা সবই অনলাইনে। করোনাকালে তিনি কোথাও বাইরে গিয়ে কোন কোর্স করেন নি। যা করেছেন সবই ঘরে বসে অনলাইনে। তারপরও তিনি থেমে থাকেন নি। একটার পর একটা কোর্স করেছেন দক্ষতা বৃদ্ধির জন্যে, দেশের সুনামধন্য কয়েকটা আইটি সেন্টার এ অনলাইনে কোর্স করার সুযোগ হয়। তার অধম্য ইচ্ছাশক্তিকে কাজে লাগিয়ে তিনি কাজ করে যাচ্ছেন। তাতে তিনি এখন মুটামুটি সফলতাও পাচ্ছেন। ২০২০ এর জুন মাসে এই কাজে যুক্ত হয়ে ৩১ জুলাই প্রথম কাজ পেয়ে যান তিনি। কোর্স চলাকালিন তিনি ইনকাম করেন ৮০০ ডলারের বেশি। যার ফলে সরকারি প্রজেক্ট এ সর্বোচ্চ আর্নার হিসেবে এওয়ার্ড এর জন্যে মনোনীত হন তিনি।

সফল অনলাইন উদ্যোক্তা রুবি বেগম বর্তমানে ফাইবার, আপ ওয়ার্ক এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছেন। বর্তমানে তার ইউএসএ, ইউকে, কানাডা ও জার্মানিতে তার ক্লায়েন্ট রয়েছেন।

নিজেকে একজন প্রতিষ্ঠিত অনলাইন উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্নে বিভোর রুবি বর্তমানে মাসে গড়ে আয় করেন প্রায় ২০০০ মার্কিন ডলার।
তিনি গত বছরের ডিসেম্বরে ৮ জনের একটা এজেন্সি তৈরি করেছেন। এই এজেন্সির কাজ হলো মার্কেটপ্লেস এর বাইরের ক্লায়েন্ট দের সার্ভিস প্রধান করা। এ পর্যন্ত ৩০ জনেরও অধিক আগ্রহী উদ্যোক্তা তৈরি করেছেন রুবি বেগম। যাদেরকে তিনি সাপোর্ট দিয়েছেন অনলাইনেই। তিনি শুধু নিজের নয় রেমিট্যান্স প্রদানের মাধ্যমে দেশের জন্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। তবে তার ইচ্ছা অফলাইনে উদ্যোক্তা তৈরিতে ভুমিকা রাখার। তিনি চান একটা আইটি ফার্ম গড়ে তোলে যেসব মেয়েরা কাজের সুযোগ পায়না তারা যেনো ঘরে বসেই কিছু করতে পারে সেই রকম একটা প্লাটফর্ম তৈরি করে দিতে।

সফল উদ্যোক্তা রুবির শখ বাইক চালিয়ে ঘুরাঘুরি করা। তিনি চান একটি আইটি ফার্ম করে দেশে দক্ষ জনশক্তি তৈরি করতে। যাতে এই দেশে কোন বেকারত্ব না থাকে। তিনি মনে করেন যেইদিন দেশে বেকার সমস্যা দূর হবে তখনই দেশ থেকে নারী নির্যাতনসহ সকল ধরণের অপরাধ দূর হয়ে যাবে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন