• আজ সোমবার, ৯ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২৫ অক্টোবর, ২০২১ ৷

যৌতুকের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে নববূধর আত্মহত্যা

যৌতুকের অত্যাচার
❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২১ ঢাকা, দেশের খবর

মাসুম পারভেজ, কেরানীগঞ্জ :

ঢাকার কেরানীগঞ্জ মডেল থানার রুহিতপুর গ্রামে যৌতুকের জন্য অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে এক নববধূ আত্মহত্যা করেছেন অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ঐশী পাল(১৯) নামের ওই নারী আত্মহত্যা করেন বলে নিশ্চিত করেছেন কেরানীগঞ্জ মডেল

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু ছালাম মিয়া। তার পিতার নাম বংশী পাল। তার কাপড় ব্যবসায়ী স্বামী রাজীব মন্ডলের বাড়ি পুরান ঢাকার তাঁতীবাজার এর ১৯ নং সুতার নগর এলাকায়।

স্থানীয়রা জানান, ব্যবসায়িক কাজে স্ত্রীর কাছে ২০ লাখ টাকা চেয়ে স্ত্রীকে তার বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেয়ায় অভিমানে ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেচিয়ে ঐশী পাল আত্মহত্যা করে।

নিহতের মা চায়না পাল জানান, গত ১৪ই জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে ৫ লক্ষ টাকা নগদ ও ১০ ভরি স্বর্ণালংকার পণ দিয়ে মেয়েকে রাজিবের মন্ডলের সাথে বিয়ে দিয়েছিলাম। বিয়ের পর এক মাস পর্যন্ত মেয়ে শ্বশুরবাড়িতে ভালোই ছিল। এর মাঝে আমি মেয়ের জামাইকে বহু টাকা পয়সাও দিয়েছি।

গত কয়েকদিন আগে হঠাৎই রাজিবের ছোট ভাই সজিব মন্ডল আমার মেয়েকে এক কাপড়ে আমার বাসায় নিয়ে এসে বলে ভাবি কিছুদিন আপনার বাসায় থাকবে। কয়েকদিন থাকার পরে মেয়ে স্বামীর সাথে ফোনে কথা বলে তাকে নিয়ে যেতে বললে সে আরো ২০ লক্ষ টাকা দাবি করে অন্যথায় তাকে আর শ্বশুরবাড়িতে ফেরত নেয়া হবে না বলে জানায়।

এরপর মেয়ে অভিমান করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার ঘরের ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। আমি রাজীব মন্ডল, তার পিতা রাজন মন্ডল, মা পুর্ণিমা মন্ডল, বোন প্রমা মন্ডল, ভাই সজিব মন্ডলসহ তার পরিবারের সকলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি আবু সালাম মিয়া বলেন, পরিবারের কাছ থেকে আত্মহত্যা খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্ত যুদ্ধ মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন