সরকার কোনো চ্যানেল বন্ধ করেনি, আইনের প্রয়োগ হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

hasan mahmud n234
❏ রবিবার, অক্টোবর ৩, ২০২১ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, সরকার কোনো চ্যানেল বন্ধ করেনি। দেশের আকাশ উন্মুক্ত রয়েছে। এখানে যে কোনো চ্যানেল সম্প্রচার করতে পারে, কিন্তু দেশের আইন মেনে করতে হয়।

রোববার (৩ অক্টোবর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘আইন অনুযায়ী বাংলাদেশে যে কোনো বিদিশে চ্যানেল বিজ্ঞাপনমুক্তভাবে সম্প্রচার করতে হয়। বিশ্বের সব দেশে আইন মেনেই ভিনদেশি চ্যানেলগুলো সম্প্রচার হয়ে থাকে। শুধু আমাদের দেশে আইনকে বছরের পর বছর ধরে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদশর্ন করা হচ্ছিল। আমরা আইন বাস্তবায়নের কথা দুই বছর আগে সংশ্লিষ্ট সবাইকে বলেছিলাম। বেশ কয়েকবার তাগাদা দেওয়া হয়েছে, নোটিশ করা হয়েছে। গত মাসের শুরুতে তাদের সঙ্গে দ্বিতীয়বারের মতো বসে সিদ্ধান্ত হয় ১ অক্টোবর থেকে আইন কার্যকর করব।’

মন্ত্রী বলেন, ‘কেউ কেউ বলছেন ডিজিটালাইড না হওয়া পর্যন্ত আইন শিথিল রাখার জন্য। ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কার পুরোটা ডিজিটালাইড হয়নি। সেখানে আইন কার্যকর আছে। আমাদের দেশে এ ধরনের অজুহাত তোলার কোনো যুক্তি নেই। ক্লিন ফিড যেহেতু পায়নি সেজন্য তারা সরকারের নির্দেশনা মেনে বন্ধ রেখেছে। সেটিকে আমরা সাধুবাদ জানাই। তাদের আগেই সময় দেওয়া হয়েছিল যেন তারা সংশ্লিষ্ট চ্যানেলগুলোকে বলে ক্লিনফিড পাঠানোর জন্য এবং তারাও প্রস্তুতি নেয়। যথেষ্ট সময় দেওয়া হয়েছে, দুই বছর সময় দেওয়া হয়েছে। আমি দুই বছর আগ থেকে তাদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছি। এর আগেও এই আইন বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছিলাম।’

হাছান মাহমুদ আরও বলেন, বিবিসি, সিএনএন, আল-জাজিরাসহ ১৭ বা তারও বেশি চ্যানেল ক্লিন ফিডে আসে। অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে, অনেকে এগুলো চালাচ্ছেন না। এটি কেব্‌ল অপারেটর লাইসেন্সের শর্তবিরোধী। সুতরাং কেউ শর্ত ভঙ্গ করলে সেই অপরাধে অভিযুক্ত হবেন।

কেবল অপারেটররা আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন- এমন দাবির বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, এটি জনগণকে ধোঁকা দেওয়ার মতো একটি বক্তব্য। তারা কি চ্যানেলগুলো দেখা না যাওয়ার পর চার্জ কমিয়ে দিয়েছে? এক টাকাও তো কমেনি। বিদেশি চ্যানেল দেখানোর জন্য এজেন্টেদের যে ফি দিত, বরং সেটা এখন দিতে হবে না, টাকা সাশ্রয় হবে।

সবাই বিদেশি চ্যালেন বন্ধ করেনি জানিয়ে তিনি বলেন, আকাশ ডিটিএইচসহ কেউ কেউ ওইসব চ্যানেল চালু রেখেছে। প্রথম দিকে তারা কিছু অসুবিধার কথা বলেছিল। আমি আশা করব, সেটি দু’একদিনের মধ্যে সমাধান হয়ে যাবে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন