• আজ বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২১ অক্টোবর, ২০২১ ৷

কার্গো ট্রাকের চাপায় যাত্রীবাহি বাসের ১৯ জন গুরুতর আহত

কার্গো ট্রাকের চাপায়
❏ বুধবার, অক্টোবর ৬, ২০২১ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

লামা প্রতিনিধিঃ

লামায় প্লাষ্টিক বোতলে মিনারেল ওয়াটা বোঝাই একটি কার্গো ট্রাকের চাপায় যাত্রীবাহি বাসের ১৯জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছে। বুধবার সকাল ১০টায় লামা-চকরিয়া সড়কের পশ্চিম লাইনঝিরি স্থানে এ দূর্ঘটনা ঘটনা ঘটে।

বাসটি যাত্রী নিয়ে লামা থেকে চকরিয়া যাচ্ছিল এবং কার্গো ট্রাকটি মিনারেল ওয়াটা সহ মালামাল নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে লামা বাজারে আসছিল। আহদের ১০জনের অবস্থা আশংকাজন হওয়ায় তাদের রেফার করে দেওয়া হয়।

লামা ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও স্থানীয় জনতা আহতদের উদ্ধার করে লামা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে । বাসে ৪৯ জন যাত্রী ছিল। দুর্ঘটনার পরপরই কার্গোর ড্রাইভার হেলপার পালিয়ে যায়। এদিকে দুর্ঘটনা কবলিত বাস ও কার্গো গাড়ি দুইটি রাস্তার উপরে পড়ে থাকায় যানবাহন চলাচলে ব্যহত হচ্ছে।

লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মোঃ আলমগীর বাস কার্গোর মুখোমুখি সংঘর্ষের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাটি শুনামাত্র আমি সঙ্গীয় পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই।

ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও স্থানীয়দের সহায়তায় আহতদের চিকিৎসার জন্য দ্রুত লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে।

লামা হাসপাতালের জরুরী বিভাগের দায়িত্বরত ডাক্তার রায়হান জান্নাত বিলকিচ সুলতানা বলেন, বাস দুর্ঘটনায় হাসপাতালে মোট ১৯ জন আহত রোগী আসে।

তারমধ্যে আশংকাজনক ও গুরুতর হওয়ায় আমরা ১০ জন চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করি, ৩ জনতে লামা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ও বাকী ৬ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

বাসের ড্রাইভার আনোয়ার হোসেন ও বমু বিলছড়ি মাইজপাড়া এলাকার মৃত মনির হোসেনের ছেলে মোঃ রফিক এই দুইজনের প্রাণের আশংকা রয়েছে।

লামা হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়া আহতরা হলেন, জোৎস্না দে (২০), শুভশ্রী (১০), রূপম চাকমা (২), জহর লাল (৫৫), নুর মোহাম্মদ (২৮), মোঃ সোহেল (৩২), রাজশ্রী দে (২),

আনোয়ার হোসেন (৫০), নুরুল আলম (৩০), হাসনা বালা (৬০), মনু আলম (৩৫), তপন (৩৮), সরওয়ার (২৫), মোঃ রফিক (৩০), সরওয়ার আলম (৫৫), মোঃ সাহেদ (৬৫), শিব সংকর (৩৭), জেসি মার্মা (২২), আবুল হোসেন (৫৫)।

বাসের যাত্রী মোঃ ফারুখ বলেন, আমাদের বাসটি ধীরে ধীরে পাহাড়ে দিকে উঠছিল। কিন্তু বিপরীত দিক থেকে আসা মালবাহী কার্গো ট্রাকটি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে আমাদের বাসকে চাপা দেয়।

বাসের চালক গাড়িটি রক্ষা করতে রাস্তার বাম পাশের ড্রেনে ও গাছের কাছে চলে গেলে সেখানে এসে কার্গোটি ট্রাকটি ধাক্কা দিয়ে বাসটিকে চাপা দেয়। পরে বাসটি ধুমড়ে মুছড়ে যায়। গাড়ির একজন যাত্রীও ভালো নেই।

সবাই কমবেশি আহত হয়েছে। আমার মাথা ও হাত কেটে গেছে। আমার মা ছোট ভাই আহত। তাদের লামা হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। বাসটি লামা থেকে চকরিয়া যাচ্ছিল।

লামা ফায়ার সার্ভিসের সাব অফিসার মোঃ আব্দুল্লাহ বলেন, দূর্ঘটনায় এত হতাহত হয়েছে যে আমরা কাকে রেখে কাকে নিব বুঝতে পারছিলাম না। আহতদের দ্রুত উদ্ধার করে আমাদের গাড়িতে করে লামা হাসপাতালে নিয়ে যাই।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন