🕓 সংবাদ শিরোনাম

অভিনেতা মাহমুদ সাজ্জাদ মারা গেছেননাইম-মুশফিকের ফিফটিতে শ্রীলঙ্কাকে বড় লক্ষ্য দিলো বাংলাদেশশাহরুখ মোদীর দলে যোগ দিলেই মাদক হবে চিনির গুঁড়ো: মহারাষ্ট্রের মন্ত্রীপীরগঞ্জে সহিংসতা: স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে আদালতে সেই সৈকতবেলকুচিতে যমুনা নদী থেকে নিখোঁজ স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধারআবরার হত্যা : ২৫ আসামির মৃত্যুদণ্ড চায় রাষ্ট্রপক্ষভোলায় স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা করল স্ত্রীপরীমণির রিমান্ড: ব্যাখ্যা দিতে এক সপ্তাহ সময় পেলেন ২ বিচারকরবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত ২ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার চেষ্টা, মহাসড়ক অবরোধশুধু ছাত্রলীগ নয়, অপরাধী যেই হোক বিচার হবে: আইনমন্ত্রী

  • আজ রবিবার, ৮ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২৪ অক্টোবর, ২০২১ ৷

সরকারকে সময় নির্ধারণ করে দেওয়ার উনি কে? প্রশ্ন কাদেরের

kader
❏ মঙ্গলবার, অক্টোবর ১২, ২০২১ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- সরকারকে সময় নির্ধারণ করে দেওয়ার উনি কে, এমন প্রশ্ন রেখেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, ‘সরকারকে সময় নির্ধারণ করে দিয়েছে দেশের সংবিধান ও এদেশের জনগণ, আর ক্ষমতা দেওয়ার মালিক সর্বশক্তিমান আল্লাহ এবং দেশের ভোটারগণ।’

সরকারকে আর সময় দেওয়া যায় না, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের জবাবে আজ মঙ্গলবার সকালে তার বাসভবনে এক ব্রিফিংয়ে এ প্রশ্ন রাখেন সেতুমন্ত্রী।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ৯০ এর পটভূমি আর ২০২১ এর পটভূমি এক নয়। সুতরাং গণঅভ্যুত্থান করে সরকার পতনের দিবা স্বপ্ন বিএনপির রঙিন খোয়াবে পরিণত হবে।

জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির কর্মসূচির বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় প্রেসক্লাবে সাধারণত সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক, সামাজিক ও বিভিন্ন সংগঠন সভার আয়োজন করে থাকে, কিন্তু বিএনপি প্রেসক্লাবকে রাজনৈতিক মঞ্চ বানিয়ে ফেলেছে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি এখন প্রেস ক্লাবের ভিতরে রাজনৈতিক সমাবেশ করছে, যা অবৈধ ও অগ্রহণযোগ্য।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ইউপি নির্বাচনে বিভিন্ন জেলা থেকে দলীয় প্রার্থীর নাম পাঠানো হচ্ছে কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে তথ্য গোপন এবং নানা অনিয়ম ও জালিয়াতি করে কেন্দ্রে নাম পাঠাচ্ছেন। যারা এ ধরনের অনিয়মের সঙ্গে জড়িত তাদের বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে, অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হলে সঙ্গে সঙ্গে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য প্রায় দুই বছর যারা অপেক্ষা করেছেন তাদের ভোগান্তি শেষ হতে যাচ্ছে জানিয়ে বলেন, প্রিন্টিং এর জন্য প্রায় সাড়ে বার লাখ ড্রাইভিংলাইসেন্সের প্রিন্টিং ও বিতরণ কার্যক্রম গত ১০ অক্টোবর থেকে শুরু হয়েছে।

মন্ত্রী আশা প্রকাশ করে বলেন, আগামী ৬ মাসের মধ্যে এসব ড্রাইভিং লাইসেন্সের প্রিন্টিং ও বিতরণ কাজ শেষ হবে।

গ্রাহকদের ভোগান্তি কমাতে প্রয়োজনে সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতেও ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রিন্টিং ও বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বিআরটিএসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দেন ওবায়দুল কাদের।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন