• আজ বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ৮ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

স্পেনে গিয়ে স্বামীকে অচেতন করে প্রেমিকের সঙ্গে ‘পালালো স্ত্রী’!

news 2n3
❏ বুধবার, অক্টোবর ২০, ২০২১ প্রবাসের কথা

কবির আল মাহমুদ, স্পেন: স্পেনে এসেই স্বামীকে চেতনানাশক খাইয়ে এক প্রবাসীর স্ত্রী (২৫) পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। রবিবার (১০ অক্টোবর) রাতে স্পেনের পর্যটন নগরী বার্সেলোনায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে ভুক্তভোগী স্বামী মিনহাজুল ইসলাম মুক্তা পালিয়ে যাওয়া স্ত্রী মুনিরা খানম মুন্নীর (২৫) বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) বার্সেলোনার স্থানীয় একটি হলে এ সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী স্বামী মিনহাজুল ইসলাম মুক্তা।

সংবাদ সম্মেলনে তার স্ত্রীমুনিরা খানম মুন্নীর বিরুদ্ধে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, গত ১০ অক্টোবর ২০২১ এ ফ্যামিলি ভিসার মাধ্যমে স্ত্রী মুন্নী এবং ২ বছরের শিশু সন্তান আয়ানকে স্পেনের বার্সেলোনায় নিয়ে আসেন। সন্তানসহ স্ত্রী বার্সেলোনায় আসার রাতেই তাকে শরবতের সাথে চেতনানাশক খাইয়ে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সবার অগোচরে ফ্রান্স প্রবাসী পরকীয়া প্রেমিকের সাথে পালিয়ে যায়। এ সময় সে দেশ থেকে নিয়ে আসা স্বর্ণালঙ্কার, নগদ ইউরোসহ মূল্যবান মালামাল সঙ্গে নিয়ে গেছে।

তিনি মুনিরা খানম মুন্নীকে ভয়ংকর প্রতারক উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন, এ সমস্যা পারিবারিক নিস্পত্তির জন্য তিনি তাঁর শ্বশুর বিয়ানীবাজারের খাসা শহীদ টিলার ইকবাল খানের দ্বারস্থ হওয়ার পরও তিনি কোন সুষ্ঠ সমাধান পাননি। আর এ জন্যে তিনি এই সংবাদ সম্মেলন করে সংবাদের মাধ্যমে এবং কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের শরণাপন্ন হয়ে এই প্রতারক মহিলার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নিতে উভয় দেশের প্রবাসীদের প্রতি অনুরোধ জানান।

মিনহাজ জানান, বিয়ে পরবর্তী স্পেনে নিয়ে আসা পর্যন্ত স্ত্রীর পিছনে তার প্রায় ৪০ হাজার ইউরো (বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা) ব্যয় হয়েছে। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার জন্য স্থানীয় প্রশাসনে অভিযোগসহ আইনী প্রক্রিয়া শুরু করেছেন।

উপস্থিত সাংবাদিকের এক প্রশ্নের উত্তরে ভুক্তভোগী মিনহাজ বলেন, তিনি ধারণা করেছেন মুন্নী তার সাথে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে যে পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়েছে, সে ফ্রান্স প্রবাসী বিয়ানীবাজারের বাসিন্দা।

তিনি এ ধরণের লজ্জা ও প্রতারণার ঘটনা যাতে ভবিষ্যতে আর কারও সাথে না ঘটে সেজন্য সকলকে সচেতন থাকার অনুরোধ করেন। এ ছাড়া তাঁর দুই বছরের সন্তান আয়ানকে তার কাছে ফিরিয়ে নিয়ে আসতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ, মিনহাজের পারিবারের সদস্যসহ কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ভুক্তভোগী মিনহাজ বিয়ানীবাজার থানার কুড়ার বাজার ইউনিয়নের আঙ্গুরা মোহাম্মদপুর গ্রামের নজরুল ইলামের ছেলে।